ঢাকা      মঙ্গলবার ২৫, জুন ২০১৯ - ১১, আষাঢ়, ১৪২৬ - হিজরী

বিশ্বে ৭৫ কোটি মানুষ থাইরয়েডজনিত সমস্যায় ভুগছে

মেডিভয়েস রিপোর্ট: সারাবিশ্বে প্রায় ৭৫ কোটি মানুষ থাইরয়েডজনিত সমস্যায় ভুগছে। এদের মধ্যে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ২ কোটি ৪০ লক্ষ মানুষ থাইরয়েড গ্রন্থির নানা রোগে ভুগছে। প্রতি ৭ জন রোগীর ৫ জনই মহিলা। ৩৯.১ শতাংশ মানুষ আয়োডিনের অভাব জনিত সমস্যায় ভুগছেন।

সম্প্রতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এক গবেষণায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে ২০০৯ সাল থেকে বিশ্বব্যাপী দিবসটি পালিত হয়ে আাসছে। এরই ধারাবাহিকতায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো আজ বাংলাদেশেও দিবসটি পালন করা হচ্ছে। থাইরয়েড একটি হরমোনজনিত সমস্যা। ঘাড়ের কাছে থাইরয়েড গ্ল্যান্ড থেকে নিঃসরিত হরমোন শরীরের মেটাবলিজমকে নিয়ন্ত্রণ এবং শরীরের প্রতিটি কোষকে প্রভাবিত করে। হরমোন শরীরের শক্তি, পুষ্টি ও অক্সিজেন উৎপাদন করতে সহায়তা করে। এর ব্যতিক্রম হলেই শরীরে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়।

অধ্যাপক ডা. এ. কে. এম ফজলুল বারী বলেন, আমাদের দেশের শতকরা ১০.৫ ভাগ লোক আয়োডিনের অভাবে গয়টারে (আইডিজি) আক্রান্ত। এক সময় দেখা যাচ্ছে তাদের গলার নিচের অংশ ফুলে যাচ্ছে। শতকরা ০.১ ভাগ লোক জন্মগত ভাবেই এ রোগে আক্রান্ত। এ সমস্যা থাকার কারনে তাদের বুদ্ধিবৃত্তিক ও শারীরিক বিকাশ ঘটছে না। শতকরা ২৬ ভাগ শিশু আয়োডিনহীনতায় ভুগছে। এ সকল আক্রান্ত ব্যক্তির অধিকাংশই চিকিৎসা সেবার আওতায় নেই।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, থাইরয়েড সমস্যা হলে হৃদস্পন্দন হ্রাস পায়, ঠাণ্ডায় স্পর্শকাতরতা বাড়ে, হাত অবশ অনুভূত হয়ে ঘাড়ের পরিবর্ধন শুরু হয়। তা ছাড়া কোষ্ঠকাঠিন্য, মেয়েদের মাসিকে প্রচুর রক্তপাত হওয়া এবং চুল ও ত্বকে শুস্কতা দেখা দেয়। থাইরয়েড সমস্যা হলে মৃদু থেকে তীব্র ব্যথা অনুভূত হয়, ঘার নড়াচড়া করালে অথবা কোনো কিছু গিলে খেতে গেলে অস্বস্তি অথবা ব্যথা অনুভূত হয়। সর্দি, হাম অথবা মাম্পসের মতো ভাইরাসজনিত রোগের সময় এ রোগটি দৃশ্যমান বেশি হয়।

দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে আলোচনা সভা, শোভাযাত্রাসহ নানা সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


আরো সংবাদ















জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর