ঢাকা      শুক্রবার ২৩, অগাস্ট ২০১৯ - ৮, ভাদ্র, ১৪২৬ - হিজরী



ডা. মো. কামরুজ্জামান

এফসিপিএস (হিমাটোলজি) 
সহকারী অধ্যাপক (হিমাটোলজি) 
ঢাকা মেডিকেল কলেজ, ঢাকা।
 

 


পরিবারের কারও রক্ত নিলে যে রোগের শংকা!

রক্ত জীবন বাচায়,রক্তেই জীবন যায়। 

হ্যাঁ, নিজ পরিবারের (বাবা, মা, সন্তান, ভাইবোন) এর রক্ত নিলে Transfusion Associated Graft versus Host Disease (TA-GvHD) হওয়ার আশংকা থাকে। এ রোগে মৃত্যুর হার শতকরা ৯০ ভাগ। অর্থাৎ, মৃত্যু অবশ্যম্ভাবী। 

তবে এই রোগটি যে সবার হবে তা নয় অর্থাৎ বিরল। যেমন সব কুকুরের কামড়েই জলাতঙ্ক রোগ হয় না।

তাই সামান্য রক্তস্বল্পতা হলেই রক্ত না নেয়া ভালো। আর নিকটাত্মীয় ব্যক্তিদের রক্ত নেয়া কখনই উচিত নয়। রক্তের প্রয়োজন হলে একই ব্লাড গ্রুপের অনাত্মীয়ের নিরাপদ ও বিশুদ্ধ রক্ত নিই।

আপন ভাইয়ের রক্ত নেওয়ার পর ছবিতে উল্লিখিত রোগীর Transfusion Associated Graft versus Host Disease (TA-GvHD) হয়েছিল। ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

আত্মীয় বা অনাত্মীয় ব্লাড ডোনার যেই হোক, প্রথমবার রক্ত নেওয়ার পরে যদি ৬ সপ্তাহের মধ্যে কোন সমস্যা না হয়, তবে সেই আত্মীয় বা অনাত্মীয় ডোনার থেকেই বারবার রক্ত নেওয়া যাবে। এটাই TA-GvHD না হওয়ার জন্য নিরাপদ। 

যে কারো ব্লাড নেওয়ার সময় ব্লাড ইরেডিয়েট (রেডিয়েশন) করে নিতে পারলে এই TA-GvHD হবে না।

আমার জানা মতে, আমাদের দেশে ঢাকায় স্কয়ার হাসপাতাল এবং ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (বর্তমানে নষ্ট) ব্লাড ইরেডিয়েশনের এই সুবিধা আছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ব্যথাবিলাস ও আমাদের ব্যথাসহনীয়া ট্যাবু

ব্যথাবিলাস ও আমাদের ব্যথাসহনীয়া ট্যাবু

ব্যথা নিয়ে আমার নিজের মাথাব্যথা কম। আমার নিজের পেইন থ্রেসল্ড খুবই বেশী।…























জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর