ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মুকিত

ডা. শেখ আব্দুল্লাহ আল মুকিত

শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ

প্রেসিডেন্ট, সেন্টার ফর হেলথ এডুকেশন এন্ড রিসার্চ। 


২৮ অগাস্ট, ২০১৬ ১১:২৬ পিএম
গবেষণা

ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন দিগন্ত

ক্যান্সার চিকিৎসায় নতুন দিগন্ত

দীর্ঘ গবেষণার পর বিজ্ঞানীরা ক্যান্সার চিকিতসায় একটি গুরুত্ত্বপূর্ণ পদক্ষেপ অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। মানুষের শরীরে ক্যান্সার প্রাইমারি সাইট থেকে কিভাবে মেটাস্টাসিস হয় তার রহস্যভেদ করতে সক্ষম হয়েছেন।

ক্যান্সারের কারনে মৃত্যুর প্রধান কারন হচ্ছে মেটাস্টাসিস। ক্যান্সার কোষগুলোর প্রাথমিক টিউমার সাইট থেকে অন্যান্য অংগ যেমন ব্রেইন, লিভার, কিডনিতে ছড়িয়ে পড়াকে বলা হয় মেটাস্টাসিস। মেটাস্টাসিসের কারনে এসব অংগ বিকল হয়ে যায় যার পরিনতি হচ্ছে মৃত্যু। বিজ্ঞানীদের ধারনা ছিল মেটাস্টাসিসকে প্রতিরোধ করতে পারলে মৃত্যুর হার অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব হবে। সেই থেকে শুরু দীর্ঘ গবেষণার। অবেশেষে গোথে ইউনিভার্সিটি এবং ম্যাক্স প্লাংক ইন্সটিউটের একদল বিজ্ঞানী রহস্য ভেদ করতে সক্ষম হলেন। 

বিশ্ববিখ্যাত নেচার পত্রিকায় প্রকাশিত তাদের গবেষণা প্রতিবেদনে দেখা যায় তাদের গবেষণা মূলত যেসব ক্যান্সার সেল রক্তনালীর মাধ্যমে দূরবর্তী অংগে ছড়ায় তাদেরকে নিয়ে। বিজ্ঞানীরা বলেন ক্যান্সার সেল গুলো রক্তনালীর ভেতর থেকে শ্বেতরক্ত কণিকাদের (wbc) মত বের হয়ে আসে। ক্যান্সার কোষগুলো প্রথমে রক্তনালীর এন্ডোথেলিয়ামের গায়ে লেগে থাকা death receptor-6(DR-6) নামক এক রিসিপ্টর(বিজ্ঞানীরা নামকরণ করেছেন) এর সাথে যুক্ত হয়। যুক্ত হওয়ার পর এন্ডোথেলিয়ামের কোষগুলো প্রোগ্রামড নেক্রোসিস বা যাকে বিজ্ঞানীরা বলছেন নেক্রোপ্টোসিস(necroptosis) হয়ে যায়।যার মাধ্যমে ক্যান্সার কোষটি বাইরে চলে আসে। এবং মেটাস্টাসিস ঘটায়। যার পরবর্তী পরিণতি মৃত্যু। বিজ্ঞানীরা বলছেন যদি এই death receptor-6(DR-6) কে কোন ভাবে ব্লক করা যায় তবে এই মেটাস্টাসিসকেউ বন্ধ করা যাবে। 

এই প্রজেক্টের প্রধান গবেষক স্টিফান অফারম্যানস মনে করেন এটা মেটাস্টাসিস প্রতিরোধে প্রধান ধাপ হতে পারে। তিনি বলেন, “ ক্যান্সার মেটাস্টাসিস থামান খুবই গুরুত্ত্বপূর্ণ কারণ ক্যান্সাররে কারণে মৃত্যু যতটা না প্রাথমিক টিউমারের কারণে হয়ে থাকে তার চেয়ে বেশি হয় মেটাস্টাসিস এর কারণে। গবেষণাটি ল্যাবে তৈরীকৃত কোষ এবং ইদুরের উপরে চালান হয়েছে। ইদুরের রক্তনালীর এন্ডোথেলিয়ামে death receptor-6(DR-6) করে মেটাস্টাসিস কে প্রতিরোধ করা সম্ভব হয়েছে। বিজ্ঞানীরা এটা নিয়ে আরো গবেষণা করে দেখছেন DR-6 ব্লক করার কারনে কোষের উপর কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তৈরী হইয় কিনা? পরবর্তীতে তারা এটা মানুষের উপর ব্যবহার করবেন বলে যানা গেছে। 

ক্যান্সার নিয়ে দীর্ঘ সংগ্রামের ইতি হয়ত আমাদের খুব অদুরেই রয়েছে।
 

‘চিকিৎসা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলাম, এর মধ্যে আবার এ হয়রানি’
যৌন হয়রানির শিকার শেবাচিমের নারী ইন্টার্ন চিকিৎসক

‘চিকিৎসা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলাম, এর মধ্যে আবার এ হয়রানি’

যৌন হয়রানির শিকার শেবাচিমের নারী ইন্টার্ন চিকিৎসক

‘চিকিৎসা দিতে গিয়ে করোনায় আক্রান্ত হলাম, এর মধ্যে আবার এ হয়রানি’

করোনা ও বার্ধক্যজনিত অসুস্থতা

এক দিনে চিরবিদায় পাঁচ বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক

এক বছর প্রয়োগ হবে সেনা সদস্যদের দেহে

চীনে করোনার প্রথম ভ্যাকসিন অনুমোদন

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত