আবদুল্লাহ আল হারুন

আবদুল্লাহ আল হারুন

শিক্ষার্থী, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ


০৪ মে, ২০১৯ ০৫:৪৯ পিএম

এন্টিবায়োটিক অকার্যকর ও স্বাস্থ্য কর্মীদের করণীয়

এন্টিবায়োটিক অকার্যকর ও স্বাস্থ্য কর্মীদের করণীয়

ব্যাক্টেরিয়া বা নির্দিষ্ট কোন রোগের জীবাণু তার ধরণ পরিবর্তন করার ফলে এন্টিবায়োটিক দ্বারা সে জীবাণু ধ্বংস করা সম্ভব হচ্ছে না।বর্তমান সময়ে এন্টিবায়োটিক অকার্যকর হওয়ার খবর মেডিকেল সাইন্সের জন্যে বিপদ সংকেত হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে বাংলাদেশের মতো উন্নয়নশীল রাষ্ট্রের জন্যে এই সমস্যা আরো তীব্র আকার ধারণ করেছে।

এই সমস্যা সমধানের জন্য অন্যান্য সকল কার্যক্রমের পাশাপাশি স্বাস্থ্যকর্মীরা যা যা করতে পারে:

১. নিজের হাত, স্বাস্থ্য উপকরণ এবং পরিবেশ পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে পারেন।

২. ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় রোগীর আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে পারেন।

৩. কিভাবে এন্টিবায়োটিক গ্রহণ করতে হয়, এর পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া কী, এন্টিবায়োটিকের অকার্যকারিতার কারণ এবং এর অপব্যবহারের ঝুঁকি সম্পর্কে রোগীর সাথে আলোচনা করতে পারেন।

৪. অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়ার ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রচলিত গাইডলাইন অনুযায়ী অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া। যেখানে অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়ার প্রয়োজন নেই সে ক্ষেত্রে অ্যান্টিবায়োটিক পরিহার করা।

৫. সংক্রামক রোগ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য রোগীকে টিকা নিতে পরামর্শ দেওয়া। হাঁচি-কাশির সময় মুখে হাত দেয়া,  মুখ ঢেকে রাখা, হাত ধোয়া এবং নিরাপদ যৌন মিলন সম্পর্কে রোগীকে অবহিত করা।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে