ঢাকা      মঙ্গলবার ২১, মে ২০১৯ - ৭, জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ - হিজরী

আগে ছিল নিয়ন্ত্রণ আর এখন নির্মূল কর্মসূচি: আখতারুজ্জামান

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচির ডেপুটি প্রোগ্রাম ম্যানেজার ডা. এম এম আখতারুজ্জামান বলেছেন, সরকারের লক্ষ্য অনুসারে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসিডিজি) অর্জন করতে হলে ২০৩০ সালের মধ্যেই ম্যালেরিয়া দেশ থেকে নির্মূল করতে হবে এবং বর্তমান কার্যক্রম অনুসারে আমরা তা করতেও পারবো। কেননা আগে আমাদের ছিল ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচি এবং এখন তা নির্মূল কর্মসূচিতে রূপান্তর হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস উপলক্ষে জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কার্যক্রমের লক্ষ্য তুলে ধরতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে ঝুঁকিপূর্ণ ১৩ জেলায় বার্ষিক সংক্রমণের হার ০.৪৬ এ নামিয়ে আনা এবং বাকি ৫১ জেলায় সম্পূর্ণরুপে ম্যালেরিয়ামুক্ত করার লক্ষ্যে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। তাছাড়াও আমাদের লক্ষ্য হলো, প্লাজমোডিয়াম ফ্যালসিপেরাম জীবাণুর আবির্ভাব প্রতিরোধ করা। কেননা দেশের ৮৪ ভাগ ম্যালেরিয়া এ জীবাণুর মাধ্যমে সংঘটিত হয়।

এ সময় তিনি ম্যালেরিয়া নির্মূলে বিভিন্ন ধরনের টিকা, সচেতনতা কার্যক্রম ও গবেষণায় ব্যয়ের তথ্য তুলে ধরেন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচি সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি ও বান্দরবান- দেশের এই তিন পার্বত্য জেলায় ম্যালেরিয়া আক্রান্ত ও মৃত্যুর হার সবচেয়ে বেশি। তাই এগুলোকে উচ্চম্যালেরিয়া প্রবণ অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম জেলাকে মধ্যম্যালেরিয়া প্রবণ অঞ্চল এবং কুড়িগ্রাম, শেরপুর, ময়মনসিংহ, নেত্রকোনা, সুনামগঞ্জ, সিলেট, মৌলভীবাজার ও হবিগঞ্জ এই নয় জেলাকে নিন্মম্যালেরিয়া প্রবণ অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল কর্মসূচির মতে ম্যালেরিয়ায় উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠী হলো, ম্যালেরিয়া প্রবণ অঞ্চলে বসবাসরত শিশু, বিশেষত পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশু ও গর্ভবতী নারী কম প্রকোপ অঞ্চল বা একেবারে ম্যালেরিয়া নেই এলাকা (যেমন-ঢাকা) থেকে ম্যালেরিয়া প্রবণ অঞ্চলে ভ্রমণকারীরা।

২০০৮ সালের তুলনায় ম্যালেরিয়া রোগীর সংখ্যা শতকরা ৮৮ ভাগ এবং মৃত্যুর হার প্রায় ৯৫ ভাগ কমাতে সক্ষম হয়েছে। এতে বেশ কয়েকটি চ্যালেঞ্জের কথা উল্লেখ করা হয়। এগুলো হচ্ছে- পার্বত্য এলাকাগুলো দূর্গম হওয়ায় দ্রুততম সময়ের মধ্যে রোগনির্ণয় করতে না পারা এবং চিকিৎসা প্রদান দুঃসাধ্য হওয়া, আন্তঃসীমান্ত চলাচল/পারাপারকারীদের মধ্যে ম্যালেরিয়ায় আক্রান্তের প্রবণতা, সকল ঝুঁকিপূর্ণ জনগোষ্ঠীদের ম্যালেরিয়ার চিকিৎসার আওতায় আনা ইত্যাদি। অনুষ্ঠানে আরও জানানো হয়, এবারই প্রথমবারের মতো সারা দেশের ৬৪টি জেলায় একযোগে বিশ্ব ম্যালেরিয়া দিবস পালিত হবে।

এ উপলক্ষে থাকছে র‌্যালি, আলোচনা সভা, স্বাস্থ্য ক্যাম্প ও ডক্যুমেন্টারি প্রদর্শনী এবং বেসরকারি ও সরকারি টেলিভিশনে বিশেষ টক শো।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ডা. মুরাদ স্বাস্থ্য থেকে তথ্য মন্ত্রণালয়ে 

ডা. মুরাদ স্বাস্থ্য থেকে তথ্য মন্ত্রণালয়ে 

মেডিভয়েস রিপোর্ট: মন্ত্রিপরিষদ পুনর্বিন্যাস করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। রোববার বিকালে…

`দশ হাজার চিকিৎসক নিয়োগে অনুমোদন দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী'

`দশ হাজার চিকিৎসক নিয়োগে অনুমোদন দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী'

প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশের বর্তমান সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় দেশের বিভিন্ন খাতের সঙ্গে সঙ্গে…

চিকিৎসক ও নার্সদের আর কোনো তদবির গ্রাহ্য হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চিকিৎসক ও নার্সদের আর কোনো তদবির গ্রাহ্য হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, ঢাকার বাইরে…

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে উত্তাল মমেক ক্যাম্পাস

ছাত্রীকে যৌন হয়রানির প্রতিবাদে উত্তাল মমেক ক্যাম্পাস

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের (মমেক) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রীকে রিকশাচালকের যৌন হয়রানির…

চিকিৎসক নার্সদের কর্মস্থলে উপস্থিতি নিশ্চিতে মনিটরিং সেল

চিকিৎসক নার্সদের কর্মস্থলে উপস্থিতি নিশ্চিতে মনিটরিং সেল

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানগুলোতে চিকিৎসক ও নার্সসহ সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়মিত কর্মস্থলে উপস্থিতি…

১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকায় নির্মাণ হচ্ছে নতুন শিশু হাসপাতাল

১ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে ঢাকায় নির্মাণ হচ্ছে নতুন শিশু হাসপাতাল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট: সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী, ঢাকা শহরে এক হাজার শয্যা বিশিষ্ট একটি…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর