২৪ এপ্রিল, ২০১৯ ০৭:৩৬ পিএম

যুক্তরাষ্ট্রে এলার্জিনাশক ওষুধ রপ্তানির অনুমোদন পেলো বেক্সিমকো

যুক্তরাষ্ট্রে এলার্জিনাশক ওষুধ রপ্তানির অনুমোদন পেলো বেক্সিমকো

মেডিভয়েস রিপোর্ট: যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাজারজাতের জন্য মার্কিন ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) অনুমোদন লাভ করেছে বেক্সিমকো ফার্মাসিটিউক্যালস লিমিটেডের এলার্জিনাশক ওষুধ সিপ্রোহেপটাডিন হাইড্রোক্লোরাইড ট্যাবলেট।

সিপ্রোহেপটাডিন মার্ক অ্যান্ড কোম্পানি, ইনক’ এর পেরিএকটিন ট্যাবলেটের (৪ এমজি) সমতুল্য, যা বিভিন্ন এলার্জি জাতীয় উপসর্গ-যেমন: চোখ দিয়ে পানি পড়া, চোখ ও নাক জ্বালা করা, অনবরত হাঁচি দেওয়া ইত্যাদি থেকে মুক্তি দেয়।

পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো ফার্মার ওরাল সলিড ডোসেজ ফ্যাসিলিটি ২০১৫ সালের জুনে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এফডিএ কর্তৃক অনুমোদন লাভ করে। ২০১৬ সালের আগস্টে প্রতিষ্ঠানটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে প্রথম বাংলাদেশি ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ওষুধ রপ্তানি শুরু করে। সিপ্রোহেপটাডিন মার্কিন বাজারে অনুমোদিত বেক্সিমকোর সপ্তম ওষুধ।

বেক্সিমকো ফার্মাসিটিউক্যালসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক নাজমুল হাসান এমপি গণমাধ্যমকে বলেন, মার্কিন বাজারের জন্য সিপ্রোহেপটাডিন তাদের সপ্তম ওষুধ এবং সম্প্রতি স্যানডোজ থেকে অধিগ্রহণ করা আরো আটটি ওষুধ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে তাদের মোট অনুমোদিত ওষুধের সংখ্যা ১৫টি। এই অনুমোদন বেক্সিমকোর কৌশলগত লক্ষ্য এবং ক্রমবর্ধমান পরিকল্পনা নিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ওষুধের বাজারে তাদের উপস্থিতিকে আরো শক্তিশালি করবে।

বেক্সিমকো ফার্মা বর্তমানে বিশ্বের ৫০টিরও বেশি দেশে বর্তমানে ওষুধ রপ্তানি করছে। বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র কোম্পানি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রে ওষুধ রপ্তানি করছে বেক্সিমকো ফার্মা। ইউএস এফডিএ ছাড়াও এজিইএস (ইউরোপীয় ইউনিয়ন), টিজিএ (অস্ট্রেলিয়া), হেলথ কানাডা, জিসিসি (গালফ) এবং টিএফডিএ’র (তাইওয়ান)স্বীকৃতি রয়েছে কোম্পানিটির।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি