ডা. শিরীন সাবিহা তন্বী

ডা. শিরীন সাবিহা তন্বী

মেডিকেল অফিসার, রেডিওলোজি এন্ড ইমেজিং ডিপার্টমেন্ট,

শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, বরিশাল।


০৬ এপ্রিল, ২০১৯ ১১:১৯ এএম

ডাক্তার সাহেব কালো ব্যাজ নিছেন তো?

ডাক্তার সাহেব কালো ব্যাজ নিছেন তো?

জ্বী ডাক্তার সাহেব। আপনাকেই বলছি। অফিসে যাবার আগে ভুলবেন না যেন।কালো ব্যাজটা সাথে নিয়েছেন তো?

আজ ৬ এপ্রিল। একদিন আগে (৪ এপ্রিল) দুপুর ২:৩০ মিনিটে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মেডিসিন ওয়ার্ডে একিউট প্যানক্রিয়াটাইটিস আক্রান্ত চিকিৎসাধীন এক রোগীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে এক পাল সন্ত্রাসী আত্মীয়-স্বজন দ্বারা হাসপাতাল ভাংচুর, সরকারি সম্পদ বিনষ্ট, সরকারি দপ্তর তথা হাসপাতালে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি সর্বোপরি সরকারের প্রথম শ্রেণীর একজন কর্মকর্তা তথা সরকারি ডাক্তার, ডা. ফাহিম ও একই সাথে সরকারের আদেশে হাসপাতালে কর্মরত দুজন ইন্টার্ন চিকিৎসককে মারাত্মক ভাবে আহত করার মতো ঘটনা ঘটেছে।

আরও পড়ুন: কক্সবাজার মেডিকেলে ইন্টার্ন চিকিৎসকদের কর্মবিরতি

ডাক্তারদের এতটাই নির্মমভাবে প্রহার করা হয়েছে যে চোখের কোন ফেটে গিয়ে রক্ত ঝরছে একজনের। এই রক্ত ঝরা এই প্রথম না। আগেও বহু বার বহু ভাবে ভুল/মিথ্যা/ভিত্তিহীন/প্রমান বিহীন ও বানোয়াট অভিযোগ তুলে ডাক্তারদের হাত ভেঙেছে। পা ভেঙেছে। রক্তাক্ত করেছে।

কি ভেবেছেন আপনারা, আমরা চুপ করে থেকেছি? কখনই না। আমরা দেশের কোনোয় কোনায় সব হাসপাতালের সব ডাক্তার রা কালো ব্যাজ ধারন করেছি। এবারও আমাদের কেউ থামিয়ে রাখতে পারবে না। আমরা মৃত রোগীর স্বজনদের আঘাতে আহত আমাদের প্রান প্রিয় চিকিৎসক ভাই বোনদের জন্য কালো ব্যাজ পরব।

ঝড়, জলোচ্ছাস, সুনামী, অগ্নিদগ্ধ হলে মানুষকে মানসিক স্বাস্থ্য সেবা দেয়া হয়। মানবিক বিপর্যয় হয়েছে বলে। যে ডাক্তার ছেলেটি নিজের রোগীর মৃত্যুর পরে রোগীর লোকের আঘাতে রক্তাক্ত হলো, সেই মানবিক বিপর্যয়ের কি ব্যবস্থা নিবেন স্বাস্থ্য বিভাগের কর্তাগন?

এক কাজ করেন। কাউকে দিয়ে একটা ওয়াজ মাহফিলের ব্যবস্থা করেন। ছোট বেলার প্রচলিত মাছালা ছিল, মা-বাপ আর শিক্ষকগন মারলে শরীরের ঐ আঘাতের জায়গাটুকু বেহেশতে যাবে। সে সময়ে তারা মুখ বুজে মার খেত। মা বাপ/শিক্ষক রাগ উঠলে মনের সুখে পিটিয়ে বেহেশত এ পাঠাত। তেমনি ডাক্তারদের রোগীর লোক আঘাত করলে আক্রান্ত স্থান বেহেশতে যাবে। এই ওয়াজ চালু করেন। ডাক্তাররা দলে দলে বেহেশত যাবার শর্ট কার্ট রাস্তা হিসেবে মনের সুখে মার খাক।

অথবা ডাক্তারের মার খাওয়া টাকে প্রমোশন/বদলীর ক্রাইটেরিয়াও বানাতে পারেন। মাইর ফাইলে লিপিবদ্ধ থাকবে। যার মাইর যত বেশি তার প্রমোশন তত বেশি। বায়োমেট্রি হাজিরা/এই সেই/হ্যান ত্যান এর সাথে মাইরও যোগ হলো।

প্রিয় ডাক্তার গন, আপনারা মাইর খাইতে থাকেন। আমরা বত্রিশ পাটি দাঁত বের করে কালো ব্যাজ ধারণ করি। এটাই প্রমাণ করতে যে আমরা মেরুদণ্ডহীন, নির্লজ্জ, বোকা চিকিৎসক প্রজাতি।

আরও পড়ুন: চিকিৎসক নির্যাতন ও আমাদের প্রচলিত আইন

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না