ডা. মো. ফজলুল কবির পাভেল

ডা. মো. ফজলুল কবির পাভেল

সহকারী সার্জন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল


০৪ এপ্রিল, ২০১৯ ১০:১৩ এএম

হাঁটু ব্যথার কারণ ও করণীয়

হাঁটু ব্যথার কারণ ও করণীয়

হাঁটু ব্যথার রোগী প্রায় সব জায়গাতেই দেখতে পাওয়া যায়। এর বিভিন্ন কারণ আছে। এদের  মধ্যে প্রধান কারণ কিন্তু অস্টিওআর্থ্রাইটিস বা অস্থিসন্ধির প্রদাহ। আমাদের দেহের প্রতিটি সন্ধি বা জয়েন্টের মতোই হাঁটুর জয়েন্টের হাড়ও নরম এবং মসৃণ কার্টিলেজ দ্বারা আবৃত। এই কার্টিলেজ যখন ক্ষয় হয়ে অমসৃণ আকার ধারণ করে তখন জয়েন্ট নাড়াচাড়ায় ব্যথা অনুভূত হয়। রোগীরা এসময় খুব কষ্ট পায়। জয়েন্ট ফুলে যায় অনেক সময়। অস্টিওআর্থ্রাইটিস ছাড়াও বিভিন্ন কারণে হাঁটু ব্যাথা হতে পারে। 

হাঁটু ব্যাথার বিভিন্ন কারণ রয়েছে। এসবের মধ্যে আছেঃ

১. অস্টিও আর্থ্রাইটিস

২. রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস

৩. লিগামেন্ট ইনজুরি

৪. গাউট

৫. বেকার সিষ্ট

৬. বারসাইটিস

৭. অস্থিসন্ধিতে ইনফেকশন

৮. ভাইরাল আর্থ্রাইটিস

৯. টিউমার

১০. প্লিকা সিনড্রোম

১১. প্যাটেলার টেন্ডনাইটিস

১২. প্যাটেলার ইনজুরি ইত্যাদি 

হাঁটু ব্যাথা হলে সাধারণত রোগীর বয়স, উপসর্গ, রোগের ইতিহাস, কিছু শারীরিক পরীক্ষার মাধ্যমে রোগ নির্ণয় করা হয়। এ ছাড়া কিছু কিছু ক্ষেত্রে  x-ray, MRI, Bone mineral density test, Rh factor ,Uric acid ইত্যাদি করা হয়। অনেক সময় হাঁটু থেকে রস বের করে পরীক্ষা করে রোগ নির্ণয় করা হয়। বিভিন্ন অসুখে হাঁটু ব্যাথা হতে পারে। আইবিডি নামে এক অসুখ আছে। সেখানে হাঁটু ব্যথা হয়। তাই সেই অসুখের জন্যেও পরীক্ষা লাগতে পারে। অনেক সময় রোগীরা ভুল বুঝে থাকেন। ভেবে থাকেন হাঁটু ব্যাথার জন্য কেন কোলনস্কপি দেয়া হলো? কিন্তু যেহেতু বিভিন্ন রোগে হাঁটু ব্যাথা হয় তাই সেসব অসুখেরও পরীক্ষা লাগে। 

চিকিৎসার জন্য কারণ নির্ণয় জরুরী। ব্যাথার ওষুধ দিলে সব ব্যাথাই কমবে। কিন্তু মূল কারণ না বের করে ব্যাথার ওষুধ দিলে সাময়িক উপশম হলেও পরে সমস্যা হবে। ব্যথা অবস্থায় হাঁটুকে বিশ্রাম দিতে হবে। দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকা বা বসে থাকা যাবে না। ব্যথা থাকা অবস্থায় সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা কম করতে হবে। হাঁটু ব্যাথা থাকলে কমোড ব্যবহার করা উচিত। বসে নামাজ পড়লে হাঁটুর উপর চাপ কম হয়। 

হাঁটু ব্যাথা খুব পরিচিত সমস্যা। এমন হলে অবশ্যই চিকিৎসক দেখান দরকার। শুধু ব্যাথার ওষুধ খাওয়া ঠিক নয়।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে