ডা. মো. ফজলুল কবির পাভেল

ডা. মো. ফজলুল কবির পাভেল

সহকারী সার্জন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল


১৯ মার্চ, ২০১৯ ০৯:৫২ এএম

ব্যাথানাশক ওষুধ থেকে সাবধান

ব্যাথানাশক ওষুধ থেকে সাবধান

অনেকে ওষুধের দোকান থেকে ওষুধ কিনে খান। আমাদের দেশে এই কালচার বহুল প্রচলিত। ওষুধের দোকানে যিনি থাকেন তিনি শুধু ওষুধের নাম আর কিছু ব্যবহার জানেন। তারাই আবার অনেক সময় ডাক্তার সেজে চিকিৎসা করেন। কেউ কেউ বড় চিকিৎসকও সেজে যান। অনেক ফার্মেসিতেই আজকাল প্রেসক্রিপশনেরও প্রয়োজন হয় না। যাওয়া মাত্রই ওষুধ দিয়ে দেন। 

কোমর ব্যাথা, হাঁটুর ব্যাথার প্রচুর রোগী আমাদের দেশে। এরকম হলেই তারা পল্লী চিকিৎসক বা হাতুড়ে ডাক্তারের কাছে চলে যান। তারাও ব্যাথার ওষুধ দিয়ে দেন চিন্তা ভাবনা ছাড়াই। রোগী খেয়ে আরাম বোধ করেন। তারপর নিজের মতো করেই খেতে থাকেন। তারপর একসময় যখন জটিলতা শুরু হয়, তখন যান ডাক্তারের কাছে। অনেক সময় অনেক দেরি হয়ে যায়। তখন আর কিছুই করার থাকে না। 

অনেকে আবার ব্যথানাশক ওষুধ এর সাথে স্টেরয়েড ওষুধ খায়। স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ বিভিন্ন রোগ ধামাচাপা দিতে ভাল কাজ করে। অনেক রোগেই দেওয়া যায়। চিকিৎসকরা দেন একটু নিয়ন্ত্রিত পদ্ধতিতে। ওষুধের দোকান থেকে কিনে কেউ বছরের পর বছর খেয়ে যাচ্ছে। ব্যাথানাশক ওষুধ চার পাঁচ বছর খাওয়ার পর কিডনিতেও সমস্যা হয়। পেপটিক আলসার হয়। আরও নানা সমস্যা হয়।   

ব্যাথানাশক ওষুধ খাওয়ার ব্যাপারে সাবধান হতে হবে। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া কোন ওষুধ খাওয়া ঠিক নয়। সচেতন হতেই হবে। কারণ অসচেতনতার ফলে অনেকেই আজ বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত হয়ে নানা কষ্টের মধ্যে দিন অতিবাহিত করছেন।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে