ঢাকা      মঙ্গলবার ২১, মে ২০১৯ - ৭, জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ - হিজরী

ব্রিটিশ স্বাস্থ্য বিভাগের সতর্কতা

ভ্যাকসিনবিরোধী প্রচারণা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভ্যাকসিনবিরোধী প্রচারণাকে ভুয়া বলে অভিহিত করেছেন ব্রিটেনের জাতীয় স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান সিমোন স্টিভেন্স। 

গত ১ ডিসেম্বর স্বাস্থ্যবিষয়ক এক সম্মেলনে এ কথা জানিয়েছেন বলে সংবাদ মাধ্যম সিএনএনের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

স্টিভেন্স বলেন, ইংল্যান্ডে গত বছরের তুলনায় হামজনিত রোগের ঘটনা তিনগুণ বেড়ে গেছে। এর সঙ্গে ফেসবুক, ইউটিউব, ইন্সটাগ্রাম ও হোয়াটস্অ্যাপে যে ভ্যাকসিনবিরোধী প্রচারণা চালানো হয় তার সম্পর্ক রয়েছে।

স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের ভ্যাকসিনবিরোধী প্রচারণা থামানোর জোর নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, ইংল্যান্ডের অর্ধেক মানুষ প্রতিনিয়ত ভ্যাকসিন নিয়ে এসব ভুয়া সংবাদ দেখছেন। এটা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইংল্যান্ডের মত আমেরিকাকেও এসব রোগের সঙ্গে প্রতিনিয়ত লড়াই করতে হচ্ছে। কেননা সামাজিক মাধ্যমে এসব ভুল তথ্য ছড়ানোর সঙ্গে কিছু স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এবং রাজনীতিবিদ জড়িয়ে পড়ছেন।

এদিকে আমেরিকাভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম বাজফিডর অভিযোগের ভিত্তিতে ইউটিউব ভ্যাকসিনবিরোধী কিছু কন্টেন্ট থেকে বিজ্ঞাপন সরিয়ে নিয়েছে। তাদের নীতি অনুসরণ করেছে গুগল এবং অ্যামাজনও।

গুগলের উদ্ধৃতি দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, ‘কোন কন্টেন্টে বিজ্ঞাপন দেবো তা নিয়ে আমাদের স্পষ্ট নীতিমালা রয়েছে। ভ্যাকসিনবিরোধী কন্টেন্ট এই নীতিমালার লঙ্ঘন।’

অ্যামাজন প্রধান জেফ বেজোস জানিয়েছেন, ভ্যাকসিনবিরোধী কোনো কন্টেন্ট অ্যামাজনে স্থান পাবে না। সেই সঙ্গে সাইট থেকে ভ্যাকসিনবিরোধী কন্টেন্ট সরিয়ে ফেলার নির্দেশও দেন তিনি। তবে সিএনএন জানাচ্ছে অ্যামাজনের ওয়েবসাইটে এখনও ভ্যাকসিনবিরোধী বিভিন্ন বইয়ের হার্ডকপি বিক্রি হচ্ছে।

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) মতে, ২০১৯ সালের শুরু থেকে এই ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত আমেরিকার ১০টির বেশি রাজ্য থেকে কমপক্ষে ১৫৯টি হাম রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। শুধু ওয়াশিংটনেই এই সংখ্যাটি ২১ এর কাছাকাছি। এছাড়া শনিবার পর্যন্ত রাজ্যের ক্লার্ক কাউন্টি পাবলিক হেলথ ৭০টির মতো হামরোগে আক্রান্তের ঘটনা পেয়েছে, যা মোটামুটি একটি মহামারির পর্যায়ে পড়ে। অথচ এই ৭০টির মধ্যে কমপক্ষে ৬১টির ক্ষেত্রে রোগীরা পূর্বে কোন ধরণের ভ্যাকসিন নেননি।

মার্কিন কংগ্রেস প্রতিনিধি শিফ সিএনএনকে বলেন, বিজ্ঞানী এবং স্বাস্থ্যবিশেষজ্ঞরা সবসময়ই ভ্যাকসিনের ইতিবাচক কার্যকারিতার ব্যাপারে সর্বসম্মতিক্রমে একমত প্রকাশ করেছেন। 

তিনি আরও বলেন, এমন কোন ধরণের প্রমাণ নাই যা থেকে বলা যাবে ভ্যাকসিন জীবনঘাতী এবং এতে পঙ্গুত্ব বরণের সম্ভাবনা থাকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভ্যাকসিন বিরোধী যে প্রচারণা ছড়ানো হচ্ছে তা জনসাধারণের জন্য চরম ক্ষতির কারণ হতে পারে। 

লন্ডনের স্বাস্থ্যবিষয়ক দাতব্য সংস্থা রয়েল সোসাইটি ফর পাবলিক হেল্থ (আরএসপিএইচ) গত জানুয়ারিতে সতর্ক করেছিল, ভ্যকসিন নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার পাশাপাশি ভয়ঙ্কর তথ্য পরিবেশনে সহযোগিতা করছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো। 
 

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাকিস্তানে প্র্যাকটিস করেন না ৮৫ হাজার নারী চিকিৎসক 

পাকিস্তানে প্র্যাকটিস করেন না ৮৫ হাজার নারী চিকিৎসক 

মেডিভয়েস ডেস্ক: পাকিস্তানে ৮৫ হাজার নারী চিকিৎসাবিদ্যায় ডিগ্রি অর্জন করেও প্র্যাকটিস (চিকিৎসাসেবা দেয়া)…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর