ময়ূখ মামুন

ময়ূখ মামুন


১৬ অগাস্ট, ২০১৬ ০২:৫০ পিএম
কবিতা

অবাধ স্বপ্ন

অবাধ স্বপ্ন


ময়ূখ মামুন 
ঢাকা মেডিকেল কলেজ


বীভৎস স্বপ্নের সূক্ষ্ম বেড়াজালে যখন আবদ্ধ ভূমি 
অনাকাক্সিক্ষত নিষ্ঠুর রঙ্গখেলায়
যখন মায়াকান্না ছেড়েছে মানুষ
যখন দুরাশার তীক্ষè আঘাতে কলম কাঁপে,
যখন অব্যক্ত কষ্টে হাহাকার করে সিক্ত হৃদয় কোঠা,
বিস্মিত তখন আমি জিতেন্দ্রিয় হবার ইচ্ছা পুষি।
আমার স্বপ্ন-সামিল এ চিন্তার ভাঁটার কালে 
আমি আবার সব অভিলাষকে ছিন্ন করে,
বেরিয়ে আসি অতিষ্ঠ সর্বংসহার
বিকট বিকট আর্তনাদের তোড়ে।

আমার বিমূঢ় বিম্বকে বিনাশ করে -
আমি ছুটি একাত্ম করতে সব বিভ্রান্ত মানব চিত্ত
যারা গভীর ছলনায় হৃতসর্বস্ব 
তবু হন্নে হয়ে ছুটে, মরীচিকার পিছে।
কোন সুস্মিতার মিষ্টি হাসি কিংবা
কোন মধুপূর্ণিমার মায়া চাঁদও পারে না 
তাদের বেসামাল আত্মহারা জীবনে
সজীব আত্মা জাগাতে।

তারাতো নিঃসম্বল, নিরুপায় 
শুধু দুমুঠো অন্নের আশাতে
তারা ভ্রান্ত রাজনীতির মোহ জাগানো
দুর্ধর্ষ স্বপ্নকে আজও সুস্বপ্ন ভাবে।
অথচ, তারপরেও আজ এ সর্বহারা মুমূর্ষু মুলুকে
একটা ধীমান প্রাণীও নেই
যার স্পর্শে শত দুর্নীতি,
রাজনীতি হতে পারে একটা সুনীতি।

আজ সব সাময়িক মোহকে মুক্তি দিয়ে
নিশ্চল পর্বত, গিরি প্রান্তের ফেড়ে আসবার কেউ নেই!
নিষ্পাপ ও নিষ্পেষিত এ ভূমির ভূত ভবিষ্যতের কণ্ঠে
এক ফোঁটা পানি ঢালবার কেউ নেই!
জীর্ণ শীর্ণ এ প্রাঙ্গণে
হাজারো বুভুক্ষুরা একদিষ্টে চেয়ে আছে।
চেয়ে আছে অবশ্যম্ভাবী কোন করাল গ্রাসের অপেক্ষাতে
কিন্্তু তবুও আমি নিঃসঙ্কোচে বাঁধভাঙ্গা স্বপ্নসাজি
কোন স্বপ্নপরদায় আমি দেখি
এক নিঃস্ব প্রাণের সজীব মুক্তি।
(মেডিভয়েস তৃতীয় সংখ্যায় প্রকাশিত)

আগের নিউজ
পরের নিউজ
  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না