ডা. গুলজার হোসেন উজ্জল

ডা. গুলজার হোসেন উজ্জল

হেমাটোলজি বিশেষজ্ঞ।


০৩ মার্চ, ২০১৯ ১০:৫৬ এএম

মেডিটেশনঃ ভয়াবহ এক অভিজ্ঞতা

মেডিটেশনঃ ভয়াবহ এক অভিজ্ঞতা

অনেক বছর আগের একটা কথা মনে পড়ল। আমি তখন ডায়ালাইসিস সেন্টারে কাজ করতাম। এক রোগীর ক্রনিক কিডনি ফেইলিউর। তরুণ, ত্রিশের নিচে বয়স। ডায়ালাইসিস বা ট্রান্সপ্ল্যান্ট ছাড়া উপায় নেই। নিয়মিত ডায়ালাইসিস চলছিল। হঠাৎ আবিষ্কার করি রোগীটি আসছেনা।

তিন সপ্তাহ পর রোগীর প্রবল শ্বাসকষ্ট, অস্থিরতা আর সারা শরীরে পানি। রাত সাড়ে এগারটায় হাসপাতালে এসে হাজির। ফোন পেয়ে আমিও ছুটে এলাম। ইমারজেন্সি ডায়ালাইসিস করা হলো। রোগী ঐ রাতে আরামের ঘুম দিল। পরদিন সকালে রোগীর কাছে জানতে পারলাম সে কেন এতদিন ডায়ালাইসিস নেয়নি। রোগী কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের সন্ধান পেয়েছে। মেডিটেশন করছে।

আমি: মেডিটেশনে কি হয়?

রোগী বলল: ধ্যান করতে শেখানো হয়। ধ্যানের একটা পর্যায়ে অটোসাজেশন দেই।

আমি: কি অটোসাজেশন?

রোগী: আমার কোন অসুখ নেই। আমার সমস্ত শরীরে স্বাভাবিক রক্তপ্রবাহ চলছে। প্রতিটি কোষ রোগমুক্ত। কোন কষ্ট নেই।

আমি: কিন্তু এটা তো মিথ্যা। আপনার তো অসুখ আছেই। আপনার কিডনি তো কাজ করছেনা। সেটা কি তারা জানেনা? আপনি নিজে কি সেটা মানেন না?

রোগী: মানি স্যার।

আমি: আপনি আমাদের কথায় পুরো আশ্বস্ত না হয়ে ভারতেও পরীক্ষা নিরীক্ষা করিয়েছেন।

রোগী: রোগ তো স্যার আছেই।

আমি: তাহলে ওইরকম অটোসাজেশনের মানে কি?

রোগী: ঐরকম ভাবলে একসময় রোগ থাকেনা।

আমি: কিন্তু এটা তো একধরণের আত্মপ্রবঞ্চনা। আপনার রোগ আছে কিন্তু আপনাকে ভাবতে শেখানো হচ্ছে রোগ নেই। আপনাকে মিথ্যামিথ্যি একটা অলীক জগত বানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই মিথ্যার জগতে আপনি কিছুদিন বিচরণ করে একধরণের সাময়িক আনন্দ পেয়েছেন। আমরা বাচ্চাদের যেমন নানারকম মিথ্যা গল্প শুনিয়ে সাময়িক আনন্দ দেই ঐরকম। সেই আনন্দের ফাদে পড়ে আপনি ভাবতে শুরু করেছেন যে আপনি ভাল হয়ে গেছেন। কিন্তু এই ফাঁকে আপনার বড় ক্ষতি হয়েছে৷

আপনাকে আপনার জরুরি চিকিৎসা থেকে দূরে রাখা হয়েছে। রোগ সম্পর্কেও ভুল ধারণা দেওয়া হয়েছে। আপনি বিশ্বাস করতে শুরু করেছেন আপনার রোগ নেই। অথচ আপনি নিজেও জানেন যে এটা মিথ্যা কথা। মিথ্যা দিয়ে কি সত্যি কিছু অর্জন হয়? বরং আপনাকে জানানো উচিত ছিল যে আপনার রোগ আছে৷ শেখানো উচিত ছিল কিভাবে রোগকে মেনে নিতে হয়। কিভাবে রোগের সাথেই বসবাস করতে হয়। 

আপনাকে যে ভুলিয়ে ভালিয়ে সাময়িক মিথ্যা জগতটি উপহার দেওয়া হয়েছে তার জন্য আপনার কাছ থেকে কতটাকা নেওয়া হয়েছে?

এইবার রোগী টাকার অংক বলল। আমি বললাম, এই টাকা দিয়ে আপনি চার সেশন ডায়ালাইসিস করতে পারতেন। নিশ্চয়ই টাকা এখন আপনার জন্য খুব জরুরি একটি ইস্যু৷

: জি স্যার।

এরপর আমি কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের ফোন নাম্বার নিয়ে কথা বলেছিলাম। তারা আমাকে যা জানলো তা আরো ভয়াবহ৷ তাদের ওখানে নাকি ক্যান্সার রোগীও আছে৷ এবং তারা মেডিটেশন করে কেমোথেরাপি ছাড়াই ভাল আছে৷ আমাকে ভিজিট করে যেতে বলল।

তারা আমাকে বলল " আমরা মনের সক্ষমতা বাড়াই। শরীরের প্রতিটি কোষের উপর মনের নিয়ন্ত্রণ নিশ্চিত করি। তখন মন শরীরকে যে সাজেশন দেয় শরীর সেই কথাই মেনে নেয়। "

আমি বললাম, কিন্তু কোষের যদি ইরিভারসিবল ড্যামেজ হয়? সেও কি আমার সাজেশন শুনবে?

তারা বলল সামনাসামনি আসেন। আপনাকে বুঝিয়ে দেব। আপনার আরো কিছু পড়াশুনা করতে হবে। আপনি এত অল্প পড়ে বুঝবেন না।

আমার সেই রোগীটি বছর তিনেক যুদ্ধ করে এক সময় হার মানলো। আমারও আর কোয়ান্টাম নিয়ে পড়াশুনা করা হলোনা। এই অজ্ঞতা লইয়াই এখনো বাঁচিয়া আছি।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না