ঢাকা      বুধবার ২৪, জুলাই ২০১৯ - ৯, শ্রাবণ, ১৪২৬ - হিজরী



ডা. মুহাম্মাদ সাঈদ এনাম ওয়ালিদ

চিকিৎসক, মনোরোগ বিশেষজ্ঞ কলামিস্ট, জনস্বাস্থ্য গবেষক।


সিমেন এলার্জি ও তার প্রতিকার

মনিকা দম্পতী এসেছেন বিরল এক উপসর্গ নিয়ে। তাদের নতুন বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পর থেকেই এই সমস্যা। প্রায় মাস দুয়েক হয়ে গেলো উপসর্গের। অনেক ডাক্তার দেখালেন, কোন ফল পাচ্ছেন না। আর বার বার এ সমস্যা নিয়ে এক ডাক্তারের কাছে যেতেও পারেন না, কিছুটা লজ্জায়।

সহবাসের আধাঘন্টা পরই শুরু হয় সমস্যার। সেটা মনিকার নিজের। জনন অঙ্গে তীব্র জ্বালাপোড়া, আশে পাশে চুলকানি ও ব্যাথা, মাথা ব্যাথা, ঝিন ঝিন, বমি বমি ভাব। আর এ জন্য তাদের দাম্পত্য জীবনে কিছুটা পড়েছে। কেউ কেউ বলেছেন, ভুত প্রেতের আসর আবার কেউ বলছেন উপরি সমস্যা। সেটা ক্লিয়ার হতেই তারা সাইকিয়াট্রিস্ট দেখাতে এসেছেন। 

পুরো হিস্ট্রি নিয়ে জানা গেলো আসলে মনিকা বা তার স্বামী কারো কোন মানসিক সমস্যা নেই, নেই কোন রিলেশনশিপ এ সমস্যা। অনেক সময় বিবাহ পূর্ব পছন্দ অপছন্দ বা প্রেম বিষয়ক ঘটনা থেকে থাকলে বিয়ের পর ঘনিষ্ট  সান্নিধ্য বা মেলামেশায় সমস্যা হয়। সেটা ক'দিন গেলে আবার সেরেও যায়। মনিকা দম্পতির এমন কিছু নয়।

মুলত মনিকা সিমেন এলার্জি তে ভুগছে। এ রোগ খুব যে দূর্লভ তা নয়। স্বামীর মেলামেশার পর নির্গত সিমেন ই স্ত্রীর এ সমস্যা তৈরী করে। স্ত্রীর শরীরে প্রচন্ড এলার্জিক রিয়েকশন দেখা দেয়। যৌনাঙ্গে জ্বালা যন্ত্রনা হওয়া, ফুলে যাওয়া, লাল হয়ে যাওয়া, তীব্র চুলকানি, ব্যাথা সাথে এলার্জির জেনারেল রিয়েকশন ও থাকে, যেমন মাথা ধরা,  বমি, ঝিনঝিন, জ্বর, র‍্যাশ দেখা দেয়া। এমন কি সেমিনাল ফ্লুইড যে স্থানে লাগে সেখানেও চুলকানি বা যন্ত্রণা হওয়া।

কেনো এমন হয়?

সাধারণত স্বামীর নির্গত সেমিনাল ফ্লুইডের প্রোটিনের জন্যে স্ত্রীর এলার্জিক রিয়েকশন এ। যে কারো যেকোন কিছুতে এলার্জি থাকতে পারে। যেমন কারো ঠান্ডায় এলার্জি, কারো গরমে এলার্জি, কারো চিংড়ি মাছ খাওয়াতে এলার্জি, কারো আলুর তরকারি তে কারো বা বেগুন সবজি তে এলার্জি। এমন অনেকে আছেন বিভিন্ন ঔষধেও তাদের এলার্জি দেখা দেয়।

কি চিকিৎসা? 

সিমেন এলার্জি অনেক চিকিৎসা আছে যেমন কনডম ব্যবহার, এন্টি হিস্টামিন, সিমেন ডাইলুলেশন এন্ড ডি সেনসিটাইজেশন। অনেকে মনে করেন  সিমেন এলার্জি বন্ধ্যাত্ব করে। তা মোটেও ঠিক নয়। মনিকা দম্পতীর সেটা ও একটা ভয় ছিলো। সিমেন এলার্জির চিকিৎসা একজন ইমিউনোলজিস্ট তত্বাবধানে করা ভালো। মনিকা ও তার স্বামী  তাদের সমস্যা টা জেনে বেশ আশ্বস্ত হলেন, যদিও এ গোপন সমস্যায় বিব্রত হয়ে কিছুটা হতাশা তাদের পেয়ে বসেছি। অসচেতনতার কারনে এ সমস্যা আমাদের দেশের অনেক নারী তীব্র যন্ত্রণা নিয়ে জীবন যাপন করেন। লোকলজ্জার ভয়ে চিকিৎসার শরনাপন্ন হননা বললেই চলে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

জন্ডিস প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সতর্কতা

জন্ডিস প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সতর্কতা

জন্ডিস নিজে কোন রোগ নয়। এটি রোগের উপসর্গ। লিভারে প্রদাহ বা হেপাটাইটিস…

ডেঙ্গুর মূল ফোকাস এবার প্লাজমা লিকেজের দিকে!

ডেঙ্গুর মূল ফোকাস এবার প্লাজমা লিকেজের দিকে!

এবারের ডেঙ্গু খুব atypical presentation নিয়ে হাজির হইছে। আমার ব্যক্তিগত দৃষ্টিকোণ এবং…

ডেঙ্গুজ্বর আতঙ্ক: কারণ ও করণীয়

ডেঙ্গুজ্বর আতঙ্ক: কারণ ও করণীয়

ইদানিং দেশের ভয়াবহ মৃত্যুর আতঙ্কের অপর নাম ডেঙ্গু জ্বর। এ জ্বরে মানুষ…

আমরা কি মাস হিস্টিরিয়ায় ভুগছি?

আমরা কি মাস হিস্টিরিয়ায় ভুগছি?

মনোবিজ্ঞান ও সমাজবিজ্ঞানের ভাষায় মাস হিস্টিরিয়া হলো একধরণের কালেক্টিভ অবসেসশনাল বিহেভিয়ার। একটা…

ব্লাইটেড ওভাম: নির্ণয় ও চিকিৎসা

ব্লাইটেড ওভাম: নির্ণয় ও চিকিৎসা

ব্লাইটেড ওভাম (blighted ovum/ anembryonic pregnancy/ empty sec) প্রেগনেন্সিতে একটি পরিচিত সমস্যা।…

ক্যান্সার আক্রান্তের যতসব কারণ

ক্যান্সার আক্রান্তের যতসব কারণ

ক্যান্সার হলে আর রক্ষা নেই এ কথা বহুল প্রচলিত। যদিও বর্তমানে অনেক…



জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর