২৪ ডিসেম্বর, ২০১৮ ১১:২১ এএম

ভালো করতে পারেনি নতুন মেডিক্যাল কলেজগুলো

ভালো করতে পারেনি নতুন মেডিক্যাল কলেজগুলো

মেডিভয়েস রিপোর্ট: স্বাস্থ্যখাতের উন্নয়নে সরকার গত এক দশকে বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ অনুমোদন দিয়েছে ২৯টি। শিক্ষক সংকট, অনুমোদনবিহীন শিক্ষার্থী ভর্তি, জমি বা ফ্লোর স্পেস স্বল্পতা, শয্যা অনুযায়ী রোগীর স্বল্পতা, লাইব্রেরি ও শ্রেণীকক্ষের অভাব রয়েছে বেসরকারি এসব মেডিক্যাল কলেজে। 

ফলে এসব নতুন মেডিক্যাল কলেজের মান ও গুণ নিয়েও রয়েছে চিকিৎসাবিজ্ঞানীদের মধ্যে নানামত। এ প্রসঙ্গে বিশিষ্ট চিকিৎসা শিক্ষাবিদ ও ওয়ার্ল্ড ফেডারেশন ফর মেডিক্যাল এডুকেশনের সিনিয়র অ্যাডভাইজার অধ্যাপক ডা. মোজাহেরুল হক বলেন, বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলোয় একদিকে অনিয়ম করে আসনের অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তি করা হচ্ছে। 

আবার শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্তসংখ্যক শিক্ষক নিয়োগ ও অবকাঠামো তৈরি করা হচ্ছে না। সরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলোয় এ ধরনের সমস্যা বিশেষ করে অবকাঠামো ও শিক্ষক সংকট রয়েছে। এর ফলে দেশের মেডিক্যাল শিক্ষার মান নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না। তৈরি হচ্ছে না দক্ষ চিকিৎসক,যার প্রভাব পড়ছে সার্বিক চিকিৎসা সেবায়। অপর্যাপ্ত অবকাঠামো নিয়ে কার্যক্রম চালানো বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলোর একটি মুন্সীগঞ্জের বিক্রমপুর ভুইয়া মেডিক্যাল কলেজ। প্রয়োজনীয় অবকাঠামো, হাসপাতালে পর্যাপ্তসংখ্যক রোগী,প্রয়োজনীয় শিক্ষক কোনোটিই নেই মেডিক্যাল কলেজটিতে। 

মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন না নিয়ে নীতিমালা লঙ্ঘন করে অতিরিক্ত শিক্ষার্থী ভর্তির অভিযোগও রয়েছে গত এক দশকে অনুমোদন পাওয়া বিভিন্ন বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজের বিরুদ্ধে। বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ পরিচালনা নীতিমালার শর্ত পূরণ না করে শিক্ষা কার্যক্রম চালিয়ে যাওয়ায় ২০১৬-১৭ সালে নয়টি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজের ভর্তি কার্যক্রম স্থগিত করে দেয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ বলেন, দেশের বেসরকারি মেডিকেল কলেজগুলোর মান এখনো ভালো হয়ে ওঠেনি। যেসব মেডিক্যাল কলেজ নির্ধারিত সময়ের পরও ভালো করতে পারেনি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থাও নেয়া হয়েছে। তবে অনেকে আইনের আশ্রয় নিয়ে আবার তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। সব সমস্যার সমাধানে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কাজ করে যাচ্ছে।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি