ঢাকা      বুধবার ১২, ডিসেম্বর ২০১৮ - ২৮, অগ্রাহায়ণ, ১৪২৫ - হিজরী



ডা. মো. ফজলুল কবির পাভেল

সহকারী সার্জন, রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল


হরমোন থেরাপি এবং ডিম্বাশয়ে ক্যান্সার

৪৫-৫০ বছরের পর মেয়েদের মাসিক চিরতরে বন্ধ হযে যায়। এসময় মহিলারা নানা শারীরিক এবং মানসিক কষ্টে ভুগে থাকেন। হতাশা, হট ফ্ল্যাশ, অস্থিরতা, অতিরিক্ত ঘাম হওয়া, প্রস্রাবে সংক্রমণ, যোনি শুষ্কতা সহ নানা রকম সমস্যা হয়। হরমোন থেরাপি আবিষ্কারের পরে এসব কষ্ট কিন্তু অনেক কমে এসেছে।

কিন্তু হরমোন থেরাপি যে শুধু উপকার করে তা নয়। এর কিছু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও আছে। নানারকম সমস্যা  হতে পারে হরমোন থেরাপিতে। ডিম্বাশয়ে ক্যান্সার তাদের মধ্যে অন্যতম।

আমেরিকা এবং যুক্তরাজ্যে প্রায় ৬ মিলিয়ন মহিলা হরমোন থেরাপি নেন। আমাদের দেশে সঠিক পরিসংখ্যান না থাকলেও অনেক মহিলা হরমোন থেরাপি গ্রহণ করেন।

গবেষণায় দেখা গেছে, যারা বর্তমানে হরমোন থেরাপি নিচ্ছেন তাদের ডিম্বাশয়ে ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশী এবং গবেষকরা এটাও লক্ষ্য করেছেন হরমোন থেরাপি বন্ধ করার পর ডিম্বাশয়ে টিউমারের হারও অনেক কমে গেছে। প্রায় ২১,০০০ মহিলার উপর তারা গবেষণা করেন। তারপর বিজ্ঞানীরা রিপোর্ট প্রকাশ করেন।

গবেষকরা আবিষ্কার করেছেন যারা স্বল্প সময়ের জন্য হরমোন থেরাপি নেন তাদেরও ডিম্বাশয়ে ক্যান্সারের ঝুঁকি আছে। সম্ভবত তাদের ঝুঁকি একেবারেই যারা হরমোন থেরাপি নেন না তাদের থেকে বেশি। হরমোন থেরাপি দুই ধরনের আছে। শুধু ইস্ট্রোজেন দিয়ে হরমোন থেরাপি দেয়া যায় আবার ইস্ট্রোজেন প্রজেস্টেরন দিয়েও দেয়া হয়। দুই ধরনের হরমোন থেরাপির ফলেই কিন্তু ডিম্বাশয়ে ক্যান্সার হতে পারে।

হরমোন থেরাপি অনেক মহিলার জন্য আশীর্বাদ বয়ে এনেছে। যদিও এর ফলে ডিম্বাশয়ে, জরায়ুতে এবং স্তনে ক্যান্সার হতে পারে। সুতরাং হরমোন থেরাপি দেবার পূর্বে এই বিষয়টা খেয়াল করা দরকার। নিয়মিত পরীক্ষা নিরীক্ষাও করা উচিত। তাতে সমস্যা অনেক কমে যাবে। হরমোন থেরাপি নিলে নিয়মিত চিকিৎসকের কাছে অবশ্যই যাওয়া উচিত।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


স্বাস্থ্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ক্রিপটোমেনোরিয়া মাসিক যেথা লুকিয়ে রয়

ক্রিপটোমেনোরিয়া মাসিক যেথা লুকিয়ে রয়

রামিসা, চৌদ্দ বছরের টলটলে কিশোরী। ক্লাস নাইনে পড়ে। হাত পা বড় হয়ে…

সিজারের পর নরমাল ভেজাইনাল ডেলিভারি সম্ভব কি না?

সিজারের পর নরমাল ভেজাইনাল ডেলিভারি সম্ভব কি না?

আমাদের দেশে অনেকেরই ধারণা একবার সিজারের মাধ্যমে ডেলিভারি হলে পরবর্তী প্রতিটি প্রেগনেনসিতে সিজার…

স্ট্রোক প্রতিরোধে করণীয়

স্ট্রোক প্রতিরোধে করণীয়

আগে স্ট্রোকের রোগী মানেই মাথায় আসতো বুড়ো কোন রোগীর মুখ। ।কিন্তু এই…

টার্নার সিনড্রোম কী, উপসর্গ ও চিকিৎসা

টার্নার সিনড্রোম কী, উপসর্গ ও চিকিৎসা

ক্রোমোসোমের সমস্যার জন্য টার্নার সিনড্রোম হয়।  মানুষের শরীরের দেহকোষে ৪৬টি ক্রোমোজোম থাকে। …

আমি তো মরে গেছি, আমাকে গোরস্তানে রাখো

আমি তো মরে গেছি, আমাকে গোরস্তানে রাখো

আমেনা বেগম, বয়স ৪৬।  কিছু দিন পূর্বে জ্বরে ভুগেন।  ৪-৫ দিন জ্বর…



জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর