ঢাকা শুক্রবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ১ ঘন্টা আগে
২১ নভেম্বর, ২০১৮ ২০:৪৯

আমজাদ হোসেনের চিকিৎসার সব দায়িত্ব সরকারের: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আমজাদ হোসেনের চিকিৎসার সব দায়িত্ব সরকারের: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

মেডিভয়েস রিপোর্ট: গুণী চলচ্চিত্র নির্মাতা-অভিনেতা আমজাদ হোসেনের চিকিৎসার সব দায়িত্ব সরকারের। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেওয়ার সব ধরনের সহযোগিতা সরকার দেবে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। 

বুধবার (২১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর তেজগাঁওয়ের বেসরকারি ইমপালস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আমজাদ হোসেনকে দেখতে গিয়ে তিনি এসব কথা জানান। 

স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম বলেন, হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার সময়  আমজাদ হোসেনের শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত শঙ্কাপূর্ণ ছিলো। তবে এখন ওই অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। আর এক্ষেত্রে তার চিকিৎসার সব দায়িত্ব (খরচ) সরকার বহন করবে। 

এ সময় আমজাদ হোসেনের ছেলে সোহেল আরমান সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী আশ্বস্ত করার পর বাবাকে বিদেশে পাঠানো যায় কি না চেষ্টা করছি। আমরা ব্যাংককের বিভিন্ন হাসপাতালে যোগাযোগও করেছি।  ব্যাংককের বিভিন্ন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে মেইল আদান-প্রদান চলছে। তারা বলেছেন-যদি এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে রোগীকে নিয়ে যাওয়া হয় তাহলে তারা অ্যাকসেপ্ট করবেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কনফার্ম করলেই আমরা প্রধানমন্ত্রীকে বিষয়টি জানাবো। 

ইমপালস হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট অধ্যাপক ডা. জহির আল আমিন বলেন, আমজেদ হোসেন এই হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি আছেন। উনি একটি ম্যাসিভ স্ট্রোক নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। দেরি করে হাসপাতালে এসেছিলেন বলে অবস্থা যথেষ্ট সংকটাপন্ন ছিলো। আমরা শুধুমাত্র সাপোর্টিভ চিকিৎসা দিয়েছি। এখনও উনার হার্টের সমস্যা রয়েছে। আমরা চিকিৎসা বোর্ড করে ওনার চিকিৎসা সম্পন্ন করছি। 

বিশিষ্ট অভিনেতা, লেখক, চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেন ১৯৬১ সালে ‘হারানো দিন’চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রাঙ্গনে পা রাখেন তিনি। পরবর্তীতে চিত্রনাট্য রচনা ও পরিচালনায় মনোনিবেশ করেন। ১৯৬৭ সালে ‘আগুন নিয়ে খেলা’সিনেমা নির্মাণের মাধ্যমে পরিচালক হিসেবে অভিষেক ঘটে তার। এরপর ‘নয়নমনি’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘ভাত দে’ সিনেমা নির্মাণ করে প্রশংসা কুড়ান আমজাদ হোসেন।

১৯৭৬ সালে ‘নয়নমনি’ সিনেমার জন্য প্রথম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন। তারপর ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সুন্দরী’, ‘ভাত দে’, ‘জয়যাত্রা’ চলচ্চিত্রের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেন আমজাদ হোসেন।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত