ডা. নুসরাত সুলতানা লিমা

ডা. নুসরাত সুলতানা লিমা

সহকারী অধ্যাপক (ভাইরোলজি)
পিএইচডি গবেষক (মলিকুলার বায়োলজি)
ইন্সটিটিউট ফর ডেভলপিং সাইন্স এন্ড হেল্থ ইনিশিয়েটিভস।


০৬ নভেম্বর, ২০১৮ ১১:১৭ এএম

বাহকের সাথে বাহকের বিয়ে হলে কেন শিশুর থ্যালাসেমিয়া রোগ হয়?

বাহকের সাথে বাহকের বিয়ে হলে কেন শিশুর থ্যালাসেমিয়া রোগ হয়?

থ্যালাসেমিয়া বিষয়ে মানুষকে সচেতন করতে গেলেই কয়েকটি প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। আমার ধারনা এই প্রশ্নগুলো বেশির ভাগ মানুষের মনে জাগে।

১. থ্যালাসেমিয়ার বাহক বা ক্যারিয়ার কী?

উঃ আমাদের শরীরের সকল বৈশিষ্ট্য যেমন চুলের রঙ, গায়ের রঙ, উচ্চতা ইত্যাদি যা দ্বারা নির্ধারিত হয় তার নাম হচ্ছে জীন। প্রতিটা বৈশিষ্ট্যের জন্য একেকটা জীন দায়ী। জীনগুলো জোড়ায় জোড়ায় থাকে। একটা আসে বাবার কাছ থেকে আর অন্যটা মায়ের। এই জীনগুলো যখন ত্রুটিযুক্ত হয় তখনই মানুষের বিভিন্ন জন্মগত রোগ হয়। বাহক হচ্ছে তারাই যারা বাবা মায়ের একজনের কাছ থেকে ত্রুটিপূর্ণ আর অন্যজনের কাছ থেকে সুস্থ জীন পেয়েছেন।

২. থ্যালাসেমিয়ার বাহকরা কি রোগী?

উঃ না না এবং না। থ্যালাসেমিয়ার বাহকরা রোগী নয়। তারা আপনার আমার মত সুস্থ মানুষ। আমার রক্ত পরীক্ষা করলে আমিও বাহক হিসেবে শনাক্ত হতে পারি। বাহকরা শুধুমাত্র ত্রুটিযুক্ত জীন বহন করে। একজোড়া জীনের মধ্যে অন্য জীনটি সুস্থ থাকায় ত্রুটিপূর্ণ জীনটি শরীরের কোন রকম ক্ষতি সাধন করতে পারে না। তাই বাহকদের থ্যালাসেমিয়া রোগের কোন উপসর্গ থাকে না।

৩. বাহকের সাথে বাহকের বিয়ে হলে কেন শিশুর থ্যালাসেমিয়া রোগ হয়?

উঃ যেহেতু জীন জোড়ার একটি আসে মা আর অন্যটি আসে বাবার কাছ থেকে। বাহকের সাথে বাহকের বিয়ে হলে বাবা মা উভয়ের ত্রুটিযুক্ত জীন সন্তানের মধ্যে আসার আশংকা থাকে। ফলে শিশু মরণব্যাধি থ্যালাসেমিয়া রোগ নিয়ে জন্ম নিতে পারে।

৪. বাহক নির্ণয়ের উপায় কী?
উঃ শুধুমাত্র একটি রক্ত পরীক্ষা ‘হিমোগ্লোবিন ইলেকট্রোফোরেসিস’ করলেই থ্যালাসেমিয়ার বাহক নির্ণয় করা যায়।

আসুন সুস্থ উদ্যমী প্রত্যয়ী থ্যালাসেমিয়ামুক্ত আগামী প্রজন্ম সৃষ্টির জন্য অঙ্গীকারাবদ্ধ হই। বাহকের সাথে বাহকের বিয়ে বন্ধ করি।

আরও পড়ুন

►চাকরির আগে ডোপ ও বিয়ের আগে ব্লাড টেস্ট বাধ্যতামূলক: হাইকোর্ট

►বাহকের সাথে বাহকের বিয়ে হলে কেন শিশুর থ্যালাসেমিয়া রোগ হয়?

►বিয়ের আগে রক্ত পরীক্ষার আইন প্রশ্নে হাইকোর্টের রিট, বাংলাদেশ কি প্রস্তুত?

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত