ঢাকা      মঙ্গলবার ১৩, নভেম্বর ২০১৮ - ২৯, কার্তিক, ১৪২৫ - হিজরী

প্রথম স্ট্রোকে বাকশক্তি হারিয়ে দ্বিতীয় স্ট্রোকেই ফিরে পান!

মেডিভয়েস ডেস্ক: চার বছর আগে প্রথম স্ট্রোকে বাকশক্তি হারানো এক বৃদ্ধ দ্বিতীয় স্ট্রোকে তার হারানো বাকশক্তি ফিরে পেয়েছেন। তবে, বাকশক্তি ফিরে পেলেও এই বাকশক্তি পুনরায় হারিয়ে ফেলারও যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে পিটারের। এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলেও তাদের প্রিয় মানুষটি সুস্থ হয়ে ওঠায় বর্তমানে খুশির জোয়ারে ভাসছেন তারা।  বিবিসির একটি প্রতিবেদনে এই চাঞ্চল্যকর খবরটি প্রকাশ পেয়েছে।

জানা যায়, চার বছর আগে যুক্তরাজ্যের অধিবাসী ৭৩ বছর বয়সী পিটার জীবনে প্রথমবারের মতো স্ট্রোকে আক্রান্ত হন। এই স্ট্রোকের কারণে বাকশক্তি হারিয়ে ফেলেন তিনি। তবে, এ বছরের শুরুতে তিনি হঠাৎ করেই তার হারানো বাকশক্তি ফিরে পান। পরবর্তীতে জানা যায় যে, ২য় বারের মতো স্ট্রোক করার ফলেই তিনি তার হারানো বাকশক্তি ফিরে পেয়েছেন।

বাকশক্তি ফিরে পাবার দিনটির কথা মনে করার সময় পিটার বলেন, "আমি অন্য দিনগুলোর মতো স্বাভাবিকভাবে ঘুম থেকে উঠি। আমার স্ত্রী ক্যারোল বিছানার অন্যপাশে শুয়ে ছিল। আমি উঠে দাঁড়িয়ে ওর সাথে কথা বলতে থাকি। তখনও আমি ঠিক বুঝে উঠতে পারিনি ব্যাপারটা। আমার শুধু এটাই মনে হচ্ছিলো যে আমি আমার স্ত্রীর সাথে কথা বলছি এবং এটা খুব স্বাভাবিক।"

পিটারের হতবাক স্ত্রী ক্যারোল ব্যাপারটি বুঝতে পেরে আবার বাকশক্তি হারানোর ভয়ে পিটারকে অনর্গল কথা চালিয়ে যেতে বলেন। ক্যারোলের ভাষায়, "আমি ওর কথা শুনতে পেয়ে বার বার বলছিলাম, পিটার কথা বলতে থাকো। থেমো না! থেমো না! থেমো না কারণ এটা আবার চলে যেতে পারে। কথা চালাতে থাকো, চালাতে থাকো।"

পরে পিটারের পরিবারের অন্য সদস্যরা ব্যাপারটি জেনে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন। এই অসাধারণ ঘটনাটি উদযাপন করতে তারা সপরিবারে বেরিয়ে পড়েন ভ্রমণের উদ্দেশ্যে। ঠিক তখনই অসুস্থ হয়ে পড়েন পিটার। হাসপাতালে নেওয়ার পর জানা যায় যে, পিটার ২য় বারের মতো স্ট্রোক করেছেন। এই ২য় স্ট্রোকের কারণেই পিটার তার হারানো বাকশক্তি ফিরে পেয়েছেন বলে জানান হাসপাতালের চিকিৎসকরা। তবে, ২য় স্ট্রোকের প্রভাব বেশি মারাত্মক না হবার কারণে দ্রুতই সুস্থ হয়ে ওঠেন পিটার।

এ ঘটনা প্রসঙ্গে কগনিটিভ স্নায়ুবিজ্ঞানের অধ্যাপক অ্যালেক্স লেফ বলেন, "যদি মস্তিষ্ককে নেটওয়ার্ক হিসাবে এবং স্ট্রোককে একটা ইভেন্ট হিসেবে চিন্তা করা হয়। তাহলে ধরে নিন যে এমন অনেক ইভেন্ট আছে যা আমাদের ভাষা কেড়ে নেয়। সেক্ষেত্রে, রোগীরা মস্তিষ্কের অবশিষ্টাংশ ব্যবহার করে ভাষার কিছু কিছু ফাংশন পুনর্বহাল করতে পারে।"

উল্লেখ্য, বাকশক্তি ফিরে পেলেও এই বাকশক্তি পুনরায় হারিয়ে ফেলারও যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে পিটারের। এটা নিয়ে দুশ্চিন্তা থাকলেও তাদের প্রিয় মানুষটি সুস্থ হয়ে ওঠায় বর্তমানে খুশির জোয়ারে ভাসছেন তারা।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

অস্ট্রেলিয়ায় আলাদা হল যমজ শিশুকন্যা

অস্ট্রেলিয়ায় আলাদা হল যমজ শিশুকন্যা

মেডিভয়েস ডেস্ক:ভুটানের দুই যমজ শিশু কন্যাকে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে অস্ট্রেলিয়ার একদল চিকিৎসক তাদেরকে…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর