১৫ অক্টোবর, ২০১৮ ০৫:১৯ পিএম

এমবিবিএসে অভিন্ন ভর্তি ফি সময়ের দাবি

এমবিবিএসে অভিন্ন ভর্তি ফি সময়ের দাবি

মেডিভয়েস রিপোর্ট:২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ৩৬টি সরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে, যা এ মাসের মধ্যে শেষ হওয়ার কথা।  ভর্তি ফি’র বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন নীতিমালা না থাকায় একেক মেডিকেল কলেজে ভর্তি ফি নেয়া হচ্ছে একেক রকম।  ফলে সরকারি মেডিকেলে কলেজে চান্স পেয়েও ভর্তিতে বাড়তি টাকা গুণতে হচ্ছে শিক্ষার্থীদের। 

চলতি বছরের মেডিকেলে ভর্তিতে কয়েকটি মেডিকেলে দেখা গেছে, আকাশ-কুসুম পার্থক্য।  সবচেয়ে বেশি ভর্তি ফি নেয়া হয়েছে নোয়াখালী ও কিশোরগঞ্জের মেডিকেল কলেজে।  আর সবচেয়ে কম ফি ধরেছে রাজধানীর অন্যতম সেরা মেডিকেল বিদ্যাপীঠ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ ও সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ।  নোয়াখালি মেডিকেল কলেজে ২৫ হাজার টাকা আর সলিমুল্লাহসহ কয়েকটি মেডিকেল কলেজে নেয়া হচ্ছে ১০ হাজার টাকা।

তাহলে প্রতিষ্ঠানভেদে একজন শিক্ষার্থীকে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা বেশি দিতে হচ্ছে।  সরকারি মেডিকেল কলেজে কেন ভিন্ন ভিন্ন ভর্তি ফি জানতে চেয়েছিলাম ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ খান মো.আবুল কালাম আজাদের কাছে।  তিনি মেডিভয়েসকে জানান, “আমি দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে ভর্তি ফি বাড়ায়নি। আবার কেউ কেউ বেশি নিতে পারে। কিন্তু সরকার থেকে নির্দেশনা রয়েছে প্রয়োজন মতো নিতে পারবে। এজন্যই একেক মেডিকেলে একেক রকম ভর্তি ফি”।

এতে বৈষম্য হয় কি না জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিসিন অনুষদের ডিন ও ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক খান আবুল কালাম আজাদ মেডিভয়েসকে বলেন, আমার মনে হয় না এটা খুব বৈষম্য হয়, তবে অভিন্ন ভর্তি ফি হওয়া দরকার।

 ভবিষ্যতে এটা নিয়ে একটা নীতিমালা করা যেতে পারে। এ বিষয়ে সরকার ভাবতে পারে সরকার।  যেখানে বেসরকারি মেডিকেলে ভর্তি ফি নির্ধারণ করা আছে সেখানে সরকারি মেডিকেলেও নির্ধারণ করা যেতে পারে।    

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বরিশাল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ভাস্কর সাহা মেডিভয়েসকে বলেন, আগে ১৩ হাজার টাকা ভর্তি ফি ছিল এবার পাঁচ হাজার বাড়িয়ে ১৮ মোট হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।  অতিরিক্ত পাঁচ হাজার টাকা কেন বাড়ানো হয়েছে জানতে চাইলে অধ্যক্ষ ভাস্কর সাহা বলেন, শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন চাঁদার জন্য আসেন। অনেক সময় নিজের পকেট থেকে চাঁদা দিতে হয়।

আসলে শিক্ষার্থীদের মঙ্গলের জন্য একটু বেশি নেয়া।  তবে সব মেডিকেল কলেজেই অভিন্ন ভর্তি ফি করা উচিত সরকারের।  অভিন্ন ভর্তি ফি হলে সবার জন্যই ভালো হয়।

এ বিষয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ( চিকিৎসা ও শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. আব্দুর রশিদ মেডিভয়েসকে জানান, ভর্তি ফি নেয়ার বিষয়ে কোন নীতিমালা নেই, তবে মেডিকেল কলেজগুলো নিজেদের মতো করে নিতে পারবে।  আর যেসব মেডিকেল কলেজ নতুন তারা এরমধ্যে দিয়ে একটা ফান্ড তৈরি করে। 

তবে সবোর্চ্চ পঁচিশ হাজার টাকা ভর্তিতে নেয়ার বিষয়টি তিনি অবগত নন বলে মেডিভয়েসকে জানান।  অভিন্ন ভর্তি ফির বিষয়ে কোন নীতিমালা করা হবে কিনা জানতে চাইলে বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান ডা. আব্দুর রশিদ।    

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি
জাতীয় ওষুধনীতি-২০১৬’ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন

নিবন্ধনহীন ওষুধ লিখলে চিকিৎসকের শাস্তি