ঢাকা      সোমবার ১৭, জুন ২০১৯ - ৩, আষাঢ়, ১৪২৬ - হিজরী

ঢামেকের ৫৯ লাখ টাকা আত্মসাৎ,দুদকের মামলা

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের টিকেট বিক্রির  প্রায় ৬০ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ওই বিভাগের ইনচার্জসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করতে যাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

 গতকাল মঙ্গলবার কমিশন থেকে এসব মামলার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলে  জানিয়েছেন দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

তিনি জানান, দুদকের অনুসন্ধানে ওই ছয়জনের বিরুদ্ধে মোট ৫৯ লাখ ১০ হাজার ৬০১ টাকা আত্মাসাৎ করার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়া গেছে।

এ মামলায় যাদেরকে আসামি করা হচ্ছে তারা হলেন- হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ইনচার্জ (বরখাস্ত) মো. আজিজুল হক ভুইয়া (বর্তমানে প্রশাসনিকে সংযুক্ত), সাবেক এমএলএসএস মো. আলমগীর হোসেন (বর্তমানে ক্যাশিয়ার), সাবেক এমএলএসএস মো. আব্দুল বাতেন সরকার (বর্তমানে অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর), সাবেক অফিস সহকারী কাম মুদ্রাক্ষরিক ও ক্যাশিয়ার মো. শাহজাহান, সাবেক এমএলএসএস মো. আবু হানিফ ভুইয়া এবং জরুরি বিভাগের অফিস সহকারী মো. হারুনর রশিদ।

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজিজুল হক ভুইয়া হাসপাতালের জরুরি আট লাখ ৩৮ হাজার ৬৬৮টি টিকেট ৮১ লাখ ৭৫ হাজার ৫৮৫ টাকায় বিক্রি করেছিলেন।

পরে তিনি ওই টাকার মধ্যে থেকে ৬৬ লাখ ১৫ হাজার ৯৩০ টাকা সরকারি খাতে জমা করলেও ১৫ লাখ ৫৯ হাজার ৬৫৫ টাকা জমা করেননি।

অপরদিকে তিনি জরুরি বিভাগে রোগী ভর্তি করে ৩৮ লাখ ৩৮ হাজার ২২৭ টাকা আদায় করেন। এর মধ্যে সরকারি কোষাগারে জমা দিয়েছেন ২৩ লাখ ৪৭ হাজার ২৮১ টাকা। এখানেও তিনি ১৪ লাখ ৯০ হাজার ৯৪৬ টাকা কম জমা করেননি বলে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

আজিজুল হক অর্থ আত্মসাতের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট আলামতও নষ্ট করেছেন বলে অনুসন্ধান প্রতিবেদনে এসেছে।

মো. শাহজাহানের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ক্যাশিয়ার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে (২০০৯ থেকে ২০১০ সাল) ১৫ হাজার টিকেট বিক্রি করে দেড় লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

আবু হানিফ ভুইয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি গত ২০০৯ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত ২৮ হাজার টিকেট বিক্রি করে দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন।

হারুনর রশিদ গত ২০০৯-২০১০ থেকে ২০১২-১৩ সাল পর্যন্ত এক লাখ ১৫ হাজার টিকেট বিক্রি করে ১১ লাখ ৫০ হাজার আত্মসাৎ করেন বলে প্রতিবেদনে উঠে এসেছে।

আলমগীর হোসেন গত ২০১০ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ২৮ হাজার টিকিট বিক্রি করে দুই লাখ ৮০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে প্রতিবেদেন উল্লেখ করা হয়।

অন্যদিকে আব্দুল বাতেন সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি জরুরি বিভাগে ক্যাশিয়ার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে গত ২০০৯ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত এক লাখ টিকেট বিক্রি করে ১০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলে অনুসন্ধান প্রতিবেদনে বলা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

৯৭৯২ জন চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী 

৯৭৯২ জন চিকিৎসক নিয়োগ দেওয়া হবে: অর্থমন্ত্রী 

মেডিভয়েস ডেস্ক: জনগণের স্বাস্থ্য সেবার চাহিদা পূরণের লক্ষ্যে সরকার ৯ হাজার ৭৯২…

আমেরিকান আর্মির মেজর হলেন বাংলাদেশি ডা. মনসুর

আমেরিকান আর্মির মেজর হলেন বাংলাদেশি ডা. মনসুর

মেডিভয়েস রিপোর্ট: আমেরিকান আর্মির ক্যাপ্টেন থেকে মেজর হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত…

‘ঢাকায় ৯৩ ভাগ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ’ 

‘ঢাকায় ৯৩ ভাগ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ’ 

মেডিভয়েস রিপোর্ট: ঢাকা শহরের ৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখা হয় বলে…

ন্যাশ রোগ মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা

ন্যাশ রোগ মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা

মেডিভয়েস রিপোর্ট: বাংলাদেশে নন-অ্যালকোহলিক স্টিয়াটো হেপাটাইটিস (ন্যাশ) বা ফ্যাটি লিভার রোগে প্রায় সাড়ে…

অনারারি চিকিৎসকদের ভাতা প্রদানে নীতিগত সিদ্ধান্ত

অনারারি চিকিৎসকদের ভাতা প্রদানে নীতিগত সিদ্ধান্ত

মেডিভয়েস রিপোর্ট: অনারারি চিকিৎসকদের ভাতা প্রদানে নীতিগত সিধান্ত নেয়া হয়েছে। এ বিষয়ে সরকার…

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ কর্তৃক ২ চিকিৎসককে মারধরের অভিযোগ

চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ কর্তৃক ২ চিকিৎসককে মারধরের অভিযোগ

মেডিভয়েস রিপোর্ট: চাঁপাইনবাবগঞ্জে চিকিৎসাধীন এক পুলিশ সদস্যের স্ত্রীর গর্ভের মৃত বাচ্চাকে অপারেশনের…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর