ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৯, ৮ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ৫ ঘন্টা আগে
ডা. মোবাশ্বের আহমেদ নোমান

ডা. মোবাশ্বের আহমেদ নোমান

অ্যাসিস্টেন্ট রেজিস্ট্রার, সার্জারি, 

রংপুর আর্মি মেডিকেল কলেজ। 


০৬ অগাস্ট, ২০১৮ ১৪:৩৩

কুইনিন জ্বর সারাবে বটে, কিন্তু কুইনিন সারাবে কে?

কুইনিন জ্বর সারাবে বটে, কিন্তু কুইনিন সারাবে কে?

খুব কাছের এক বন্ধু প্রায় বলে দোস্ত দেখ না শরীরে তো হাড় ছাড়া কিছুই নাই। কী করব? মোটা হওয়ার ওষুধ কী খাব বল? 
- বলি দোস্ত মোটা হওয়ার ওষুধ নাই। আর মোটাদের দুর্গতির গল্প বলি। 
- দোস্ত দীর্ঘশ্বাস ফেলে।

এবার বাড়ি গিয়ে দেখি। দোস্তের শরীরে এই ২৮ বছর বয়সে অবশেষে বসন্ত এসেছে! বেশ নাদুস নুদুস অবস্থা। আমাকে দেখেই তো অবজ্ঞাভরা হাসি। তুই ডাক্তার হয়েও ওষুধ জানিস না আর আমাদের ফার্মেসির ডাক্তার তো ঠিকই ওষুধ জানে!

বললাম কলিকাল বলে কথা। ওষুধ খেয়ে মোটা হচ্ছে শুনেই মনটা খারাপ হয়ে গেল।
- বুঝলাম কী ওষুধ খাচ্ছে তবুও জিজ্ঞাসা করে নিশ্চিত হলাম।

ওষুধের সাইড ইফেক্ট বা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দিয়েও আমাদের দেশে চিকিৎসা চলে যাকে বলা যায় মানুষ মোটাতাজাকরণ প্রোজেক্ট। প্রায় প্রত্যেক ওষুধেরই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। কখনো কখনো সেগুলো খুব ভয়ংকর ধরনের হয়ে থাকে। অনেকটা কুইনিন জ্বর সারাবে বটে, কিন্তু কুইনিন সারাবে কে? প্রবচণটির মত।

আপনি জানেন কি চিকিৎসকরা সাধারণত নিজেরা রোগী হিসেবে খুব বাজে প্রকৃতির হয়ে থাকেন। কারণ তারা নিজেদের ছোটখাটো রোগ নির্ণয়েও সবচেয়ে খারাপ রোগগুলোর লক্ষণ খুঁজে পান আর প্রত্যেক ওষুধেই পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো মাথায় ঘুরপাক করায় প্রচুর টেনশন করেন।

মনে আছে স্টেরয়েড নামক ওষুধটির পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া পড়ার সময় A B C D...বর্ণমালা দিয়ে মনে রাখতাম। এতগুলো সাইড ইফেক্ট ছিল যে প্রত্যেক বর্ণ দিয়েই একটা বা দুইটা সাইড ইফেক্ট পাওয়া যেত। তারমধ্যে একটা সাইড ইফেক্ট হচ্ছে কিডনির ওপর মাতব্বরি করে শরীরে অতিরিক্ত পানি জমায়। মুখটা সুন্দর দেখায় ডাক্তারি নাম মুন ফেস বাংলায় চান্দের লাহান মুখ।

আর যায় কোথায়? বাঙালী ফার্মেসী ওয়ালারা খবরটা জানার পর থেকে স্টেরয়েডের বাজার আকাশে উঠে গেছে। কিন্তু এই মাতব্বরির ফল হয় খুব খারাপ। ফার্মেসিওয়ালারা এসব পড়ে নাই বলে দেদারসে দিতে পারে। ডাক্তাররা পারে না কারণ তারা জানে ওই হাইপারন্যাট্রেমিয়া হয়ে ফ্লুইড রিটেনশন (পানি জমা) ছাড়াও হাইপোক্যালেমিয়া, মাসল উইকনেস, হাইপারটেনশন (প্রেসারের রোগ), মেটাবলিক ইমব্যালান্স, পালমোনারি ইডিমা (ফুসফুসে পানি জমা), ডিইলেইড ঔন্ড হিলিং (ক্ষত দেরিতে শুকানো), আলসার (পেটে ঘা) সহ আরো কত কত সমস্যা আছে এই স্টেরয়েডের। আর কিডনি বিকল হওয়া তো আছেই।

দোস্তকে বললাম ব্রয়লার মুরগী চিনস?
- হ কেন?
- দেশী আর ব্রয়লারের পার্থক্য বুঝস?
- হ?
- চিকন অবস্থায় দেশী মুরগীর ছিলি আর বর্তমানে একটা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দিয়ে তোর চিকিৎসা চলছে বাকী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াগুলো দেখা দিতে শুরু করলে তুই ব্রয়লার হয়ে যাবি।
- বুঝেছিস?
- না। কী বলিস মাথা ঘুরতাসে।
- বললাম আপাতত ফিড খা।

এবার আমি দীর্ঘশ্বাস ফেললাম। ইয়াবা গুরুদের পাশাপাশি এই মোটাতাজাকারী গুরুদের বিরুদ্ধেও অভিযান চালানো দরকার। না হলে পাপী ইয়াবাখোরদের চেয়ে অনেক বেশি মানুষ স্টেরয়েডের (সবক্ষেত্রেই ইররেশনাল প্রেসক্রিপশনের কারণে) কারণে মারা যাবে অথচ জানবেও না আসল পাপী কে?

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত