ডা. ইমাম হোসাইন মামুন

ডা. ইমাম হোসাইন মামুন

ইন্টার্ন চিকিৎসক, 

সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ, সিলেট


০১ অগাস্ট, ২০১৮ ০৫:১৬ পিএম

ডাক্তার থাকবে ক্লিনিকে, রাস্তাঘাটে কী?

ডাক্তার থাকবে ক্লিনিকে, রাস্তাঘাটে কী?

কদিন আগেই হেলমেট পরিহিত ও রাস্তার পাশে বাইক পার্ক করা অবস্থায় এক চিকিৎসক বাসচাপায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হন। তার মগজ রাস্তায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকে। প্রতিবাদে ওই অঞ্চলে চিকিৎসকরা সড়ক অবরোধ করে প্রতিবাদ করেন। কোনো লাভ হয়নি। উল্টো আমজনতা ডাক্তারদেরই গালি দিয়ে গেছে- ডাক্তার থাকবে ক্লিনিকে, রাস্তাঘাটে কী? - এই মর্মে ডাক্তাররা ফিরে গেছে। কোনো বিচার হয়নি।

রাস্তায় ওই চিকিৎসকের রক্তের দাগ শুকোতে না শুকোতেই তিনজন কলেজ শিক্ষার্থী আবারো বাসচাপায় পিষ্ট হয়। সর্বোপরি দুটি বাসের গতির প্রতিযোগিতার ফলাফল মোট পাঁচটি লাশ। সকলেই কলেজ শিক্ষার্থী। এদের সকলেরই স্বপ্ন আছে- একদিন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, আইনজীবী ও শিক্ষক হবার। এদের মধ্য থেকেই আগামীর কারিগর উঠে আসবে।

বর্তমানের ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ারের প্রাণের মূল্যই নেই এ ভূখণ্ডে, ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তাতো মামুলি ব্যাপার। যেখানে সবাই ব্যস্ত নিজ নিজ পকেট নিয়ে। সেখানে জনগণ নিয়ে ভাবার সময় কোথায়?

এত সড়ক দুর্ঘটনার পরও যখন আইনের ন্যূনতম নাক গলেনি সেক্ষেত্রে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর দিয়ে পিকআপ চালিয়ে দেওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়। সে কাজটিই হয়েছে আজ শনির আখড়ায়। গায়ের ওপর চাকা ওঠায় মারাত্মকভাবে আহত হয়ে ওই শিক্ষার্থী মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি আছে।

এই কোমলমতি শিক্ষার্থীরা যে সুশৃঙ্খলভাবে আন্দোলন করছে এতে করে আমাদের অনেক কিছুই শেখার আছে। শেখার আছে সব দলের। 'হ্যাঁ ভাই, ঠিক ভাই' বলা সকল চাটুকার নেতাকর্মীর জন্যও। যারা নোংরাকে নোংরা বলার সৎসাহসটুকু রাখে না। তাদের মগজ দলীয় নেতাকর্মীর পায়ে বন্ধক রাখা।

ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া ড্রাইভাররা যেভাবে ঢাকা শহরের সড়ককে শাসন করছে, সেক্ষেত্রে আপনি বা আমি পিষ্ট হতে আর দেরি নেই। আমাদের মন্ত্রী মহোদয় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের শান্ত করার জন্য কিছু বলবেন, তা না করে তিনি আদৌ হেসেই যাচ্ছেন। তিনি হাসলে সমস্যা হলে আর হাসবেন না- এ কথা বলতে গিয়েও তিনি হাসছেন। আর কিছু দলীয় নেতাকর্মী এখনো গুণগান গেয়ে যাচ্ছেন।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা কী কী ভুল করছে তা দেখার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে তারা। ওই ভুল ফেসবুকে শেয়ার করেই তারা বাস ড্রাইভারের পাপমোচন করার আপ্রাণ চেষ্টা চালান। ধোয়া তুলসী পাতা বানান নেতাকে।

আন্দোলন কখনো রুটিনমাফিক হয় না। তাদের দাবি আমাদের জন্যইতো। লাইসেন্সবিহীন চালক রাস্তায় না থাকলেতো আপনি আমিই নিরাপদ। রোদ, বৃষ্টি ও পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে এ বাচ্চা ছেলে-মেয়েরা যা করছে তা স্যালুট পাওয়ার যোগ্য।

নোংরাকে নোংরা, ভালোকে ভালো বলার সাহস না থাকলে তাকেই বলা উচিত নপুংসক।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না