ঢাকা শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬,    আপডেট ৩ ঘন্টা আগে
২৮ জুলাই, ২০১৮ ১০:০২

আক্রান্ত ১ কোটির ৯০ লাখই শনাক্তের বাইরে

আক্রান্ত ১ কোটির ৯০ লাখই শনাক্তের বাইরে

মেডিভয়েস রিপোর্ট: হেপাটাইটিস বি ও সি ভাইরাসে আক্রান্ত ১ কোটি রোগীর মধ্যে ৯০ লাখই রয়েছে শনাক্তের বাইরে।  অজ্ঞতা, অসচেতনতা আর ভুল চিকিৎসায় আক্রান্তরা ক্যান্সার, লিভার সিরোসিসহ নানা জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, কেবল হেপাটাইটিস বি ভাইরাস নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমেই দেশের ৬৫ ভাগ লিভার ক্যান্সার নির্মূল সম্ভব।

তাই বহুগুণে আর্থিক ক্ষতি ও জনসাধারণের জীবন রক্ষায় সরকারকে বিনামূল্যে হেপাটাইটিস ভাইরাস শনাক্তের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান তাদের।

দেশে বর্তমানে প্রায় ১ কোটি মানুষ হেপাটাইটিস বি ও সি ভাইরাসে আক্রান্ত।  অথচ আক্রান্তের প্রতি ১০ জনের ৯ জনই জানেন না তারা এই ভাইরাসের বাহক বা আক্রান্ত।

তাই এই বিপুল জনগোষ্ঠীকে রক্ষা করতে বিনামূল্যে হেপাটাইটিস বি ও সি ভাইরাস শনাক্তের সুযোগ সৃষ্টির আহ্বান বিশেষজ্ঞদের।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মো শাহিনুর রহমান জানান, হেপাটাইটিস বি ও সি ভাইরাস যদি সরকারি হাসপাতালের শনাক্তকরণ ফ্রিও করা হয় তাহলে ১৬ কোটি মানুষের জন্য ৫০০ কোটি খরচ হবে না। আর এই টাকা যদি এখন খরচ না করা হয়, এবং তাদের লিভার সিরোসিস বা লিভার ক্যান্সার হয়, তাহলে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট বাবদ পাঁচ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে।

শিশু লিভার বিশেষজ্ঞ সহযোগী অধ্যাপক ড. মো রোকনুজ্জামান বলেন, গর্ভকালীন নারীরা যখন ডাক্তারের কাছে আসবেন, তখনই স্ক্রিনি করতে হবে, তার হেপাটাইটিস বি আছে কি-না? যদি হয়, তাহলে গর্ভকালীন সময়ে চিকিৎসা দিতে হবে। সেই সাথে বাচ্চা ডেলিভারির পর শিশুকে চিকিৎসা দিতে হবে।

দেশে অধিকাংশ হেপাটাইটিস রোগীর অধিকাংশেরই বিশ্বাস এখনো ঝাড় ফুঁক ও কবিরাজি চিকিৎসা। যা তাদের রোগ মুক্তির পরিবর্তে উল্টো আক্রান্ত করছে নানান মরণব্যাধীতে। তাই হেপাটাইটিস বি ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীরা কবিরাজী চিকিৎসায় দ্বারস্থ না হয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বিশেষজ্ঞ ডাক্তাররা পরামর্শ  দিয়েছেন।  

আরও পড়ুন-

►আক্রান্ত ১ কোটির ৯০ লাখই শনাক্তের বাইরে

►প্রতি দশ জনে ৯ জনই জানেন না তারা হেপাটাইটিসে আক্রান্ত

►প্রতি ৩ মিনিটে একজন কিশোরী এইচআইভিতে আক্রান্ত হয়

►হেপাটাইটিস বি ও সি নির্মূলে কাজ করছে সরকার

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত