মাহবুব কবির মিলন

মাহবুব কবির মিলন

সদস্য (যুগ্ম সচিব) বাংলাদেশ খাদ্য নিরাপত্তা কর্তৃপক্ষ


১৯ জুলাই, ২০১৮ ১২:০৪ পিএম

আমি মনে রাখব কোনটি?

আমি মনে রাখব কোনটি?

আমি ভুলে যাব ৯টি খারাপ মানুষের কথা। মনে রাখব ওই ১টি মানুষের কথা, যে ভাল। আমি পথ খুঁজে নেয়ার চেষ্টা করব, যে পথে ওই মানুষটি গেছে চলে। অন্ধকারে ঢেকে দেব ৯টি মানুষের অস্তিত্বকে। আলো জ্বালিয়ে দেখব ওই মানুষটিকে, বুক ভরে দেখব। ছুঁয়ে দেখব ঠিকরে বের হওয়া আলোকে, যা ঘিরে রেখেছে সেই মানুষকে।

কারণ, ৯টি তলিয়ে গেছে গভীর অন্ধকারে। তার একজন আমি।

আমি মনে রাখবো একজন চাকরিজীবীর কথা, একজন ডাক্তারের কথা, একজন সাংবাদিকের কথা, একজন উকিলের কথা, একজন ব্যাংকারের কথা ও একজন ব্যবসায়ীর কথা। একজন...। ৯ জনের কথা নয়। কারণ তা অতি স্বাভাবিক।

জীবিত থেকেও পচে গলে যাওয়া মানুষগুলোর জৈব সার থেকে ফুল ফুটুক একটি। সেটাও অনেক, অনেক পাওয়া, অনেক আশা। একটি যখন ফুটেছে, আরও ফুটবে। অনেক ফুটবে... ভরে যাবে ফুলে ফুলে একদিন এই ধরা।

দেশে সন্মানিত, দেশ বরেণ্য, দেশ সেরা কোম্পানির রপ্তানি করা খাদ্য পণ্য আটকে দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন ভেজালের কারণে। যা রপ্তানি বন্ধ হয়ে যাবার জন্য বিরাট হুমকি।

দেশে কী খাওয়াচ্ছেন তাঁরা? পুরোটাই জৈব সারে রূপান্তরিত হয়েছি আমরা। একটি ফুলের দেখা মিললেও সে তো বিরাট পাওয়া।

কে কাকে চেপে ধরার চেষ্টা করছেন? নিজেই যে চিপায় চেপে গিয়েছেন! তা কি খেয়াল করেছেন কেউ? হাস্যকর লাগে সবকিছু।

নামকরা দেশ সেরা অর্থোপেডিক্সের ডাক্তার আমার শাশুড়িকে অনবরত প্রায় প্রতিদিন পেইন কিলার খেতে বলেছিলেন প্রায় ২-৩ বছর। তাঁর আর্থ্রাইটিসের সমস্যা ছিল। একবারও বলেননি, এত বেশি খাওয়া যাবে না, কিডনির সমস্যা হতে পারে। এমনকি সিরাম ক্রিয়েটিনাইন পরীক্ষা পর্যন্ত করাননি।

আমার বিয়ে হবার পর এই পরিবারে এসে আমিই বন্ধ করাই তা। পরীক্ষা করে দেখা গেল, যা হবার তা হয়েই গেছে। বাঁচানো যায়নি শেষ পর্যন্ত তাঁকে।

১৯৯৯ সালে ঢাকা ছেড়ে বদলি হয়ে চট্টগ্রাম চলে যাই। ঢাকায় আমার এলাকায় যে ডাক্তার সন্ধ্যায় চেম্বার করতেন (হাত ভাল ছিল বেশ), তখন তাঁর ভিজিট ছিল ৫০ টাকা। ১৯৯৯ সালের পর এখন একই এলাকায় আছি। ডাক্তার সাহেবের ভিজিট ১০০ টাকা। কারো কাছে টাকা চান না। গরিব রোগী ফ্রি। ১০ টাকা দিলেও একটি জিনিস দেখার মত, সেটা তাঁর হাসি।

আমি মনে রাখব কোনটি? 

যে জৈব সারের ভিতর দিয়ে গোলাপ ফোঁটে তাঁর কথা। আমি ভূমির একটু উপরে তাকিয়ে থাকি, কয়টি ফুল ফুটল আজ। সারের দিকে নয়।

  এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত
তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা
পিতাকে নিয়ে ছেলে সাদি আব্দুল্লাহ’র আবেগঘন লেখা

তুমি সবার প্রফেসর আবদুল্লাহ স্যার, আমার চির লোভহীন, চির সাধারণ বাবা

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 
কিডনি পাথরের ঝুঁকি বাড়ায় নিয়মিত অ্যান্টাসিড সেবন 

বেশিদিন ওমিপ্রাজল খেলে হাড় ক্ষয়ের ঝুঁকি বাড়ে 

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না
জাতীয় হৃদরোগ ইন্সটিটিউটের সিসিউতে ভয়ানক কয়েক ঘন্টা

ডাক্তার-নার্সদের অক্লান্ত পরিশ্রমের কথা মিডিয়ায় আসে না