ঢাকা      সোমবার ২৬, অগাস্ট ২০১৯ - ১০, ভাদ্র, ১৪২৬ - হিজরী



ডা. নূর মোহাম্মদ শরীফ অভি

মেডিকেল অফিসার, ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব কিডনি ডিজিজেস এন্ড ইউরোলজি। 


ভারতের বিখ্যাত হাসপাতালে এ কেমন চিকিৎসা?

বিকালে ৩৫ বছরের এক রোগী দেখলাম ইন্ডিয়া থেকে ৫০ হাজার টাকা দিয়ে ২x২ সে.মি সাইজের ফাইব্রোএডেনোমা অপারেশন করে এসেছে। ইন্ডিয়ার চিকিৎসায় তারা খুব খুশি। আমার কাছে গল্প করছে; বুঝলেন স্যার, অন্যরকম অবস্থা। ৫ দিন ধরে শুধু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করলো।

হুমম (ফাইল উল্টে দেখলাম CBC থেকে নিয়ে Echocardiography, Holter BP monitoring ও সেখানে আছে)

স্যার সব রিপোর্ট পাওয়া যায় কম্পিউটারে। কাগজের কোন ব্যাপারই নাই।

হুম খুবই আধুনিক ব্যাপার দেখি!

হাসপাতালে ভর্তি থাকা লাগে নাই। দিনে দিনেই ছুটি। এসি বাসে করে আমাদের হাসপাতালে নিয়ে গেছে। আবার দিয়ে গেছে।

বাহ বেশ ভাল তো। খরচ তো তাহলে কম লেগেছে।

জ্বি স্যার। একদম কম। অপারেশনের পরে স্যার কোন এন্টিবায়োটিক ও দেয় নাই।

বাহ। আপনার মত ডায়াবেটিসের রোগীকে ও এন্টিবায়োটিক দেয় নাই? ওদের জীবানুমুক্তকরণ ব্যবস্থা নিশ্চয়ই খুব ভাল। তা আমার কাছে কী মনে করে?

না মানে স্যার অপারেশনের জায়গাটা দিয়ে একটু পানি পড়ে তো তাই একটু দেখাতে আসলাম।

খুলে দেখি ৫ সেমি লম্বা রেডিয়াল একটা ইনসিশন তার এক কোণে ক্ষত না শুকানোতে ডিসচার্জিং সাইনাসের মত হয়েছ। এই রোগী আরো অনেকদিন ভুগবে শুধুমাত্র অপারেশনের পর তাকে একটা এন্টিবায়োটিক না দেবার কারণে। এত এত পরীক্ষা করেছে অথচ সবচেয়ে দরকারী যেটা সেই হিস্টোপ্যাথলজি রিপোর্টটা দেয় নাই।

রোগীকে এসব কিছু না বলে দীর্ঘশ্বাস ফেললাম। কারণ গত মাসে খুরশীদ স্যার এক রোগীর এরচেয়ে ছোট একটা ইনসিশন দেখিয়ে আমাকে বলেছিলো, যে এই ইনসিশন দিয়েছে তার লাইসেন্স বাতিল করা উচিত। এই রোগীর ইনসিশন দেখলে না জানি স্যার কী করতেন!

গত মাসে ও বিনা পয়সায় সদর হাসপাতালে ফাইব্রোএডেনোমা করে দিয়েছি Circumareolar ইনসিশন দিয়ে। ব্যান্ডেজ খোলার পর রোগী কাটা জায়গা দেখতে না পেয়ে অবাক হয়ে প্রশ্ন করেছে সেলাই কোথায়? বেসরকারী কোন হাসপাতালে এই অপারেশন করলে কত খরচ পড়তো? খুব বেশি হলে ১০ হাজার টাকা! কাকে এই কথা বোঝাবো? রোগী সারাজীবন স্তনের মত সংবেদনশীল জায়গায় অপারেশনের এই বিশ্রী ক্ষত বয়ে নিয়ে বেড়াবে আর এই ভেবে স্মৃতিকাতর হবে যে পাঁচ দিন ধরে তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা হয়েছিলো, তাকে এসি বাসে করে নিয়ে গিয়েছিলো, কম্পিউটারের বোতাম টিপে তার পরীক্ষার রিপোর্ট বের করেছিলো, আর কোন এন্টিবায়োটিক দেয় নাই! অপারেশনটা হয়েছিলো অতি নামকরা হাসপাতাল সি এম সি ভেলোরে।

সংবাদটি শেয়ার করুন:

 


সম্পাদকীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

ডেঙ্গু রোগীদের ব্যবস্থাপনায় মশারীর বিকল্প প্রস্তাব

ডেঙ্গু রোগীদের ব্যবস্থাপনায় মশারীর বিকল্প প্রস্তাব

ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার জন্য সব সরকারি হাসপাতাল এবং কিছু কিছু বেসরকারি হাসপাতাল…

বেসরকারি মেডিকেলে ভর্তি প্রক্রিয়া ও কিছু প্রস্তাবনা

বেসরকারি মেডিকেলে ভর্তি প্রক্রিয়া ও কিছু প্রস্তাবনা

কিছুদিন পরেই সকল সরকারি-বেসরকারি মেডিকেল কলেজসমূহে ভর্তি পরীক্ষা। শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণের সাথে সাথে…

আরো সংবাদ














জনপ্রিয় বিষয় সমূহ:

দুর্যোগ অধ্যাপক সায়েন্টিস্ট রিভিউ সাক্ষাৎকার মানসিক স্বাস্থ্য মেধাবী নিউরন বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্যমন্ত্রী ঢামেক গবেষণা ফার্মাসিউটিক্যালস স্বাস্থ্য অধিদপ্তর